রবিবার| এপ্রিল ০৫, ২০২০| ২১চৈত্র১৪২৬

টকিজ

প্যারিস ফ্যাশন উইক

করোনাভাইরাসের প্রভাবে মডেলদের মুখে মাস্ক!

ফিচার ডেস্ক

জাঁকজমকপূর্ণ পোশাকের সঙ্গে মুখে মাস্ক পরা অবস্থায় একের পর এক মডেল মঞ্চে আসতে শুরু করলে পুরো পরিবেশটাই যেন পাল্টে যায়। সম্প্রতি প্যারিস ফ্যাশন উইকের ক্যাটওয়াক শোতে এমন দৃশ্যের দেখা মিলেছে।

নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে মূলত এমন ব্যতিক্রমী শোয়ের আয়োজন করা হয়। বিচিত্র পোশাকগুলো ডিজাইন করেন ফ্রান্সের ডিজাইনার মেরিন সেরে। করোনার প্রাদুর্ভাবে বিশ্বজুড়ে মার্কেটগুলোয় ধস নেমেছে। এমন পরিস্থিতির মাঝেই শোয়ের আয়োজন করা হয়।

তবে ডিজাইনার সেরে করোনার প্রাদুর্ভাবের বেশ আগেই মাস্কযুক্ত এমন ব্যতিক্রমী আউটফিট ডিজাইন করেছিলেন। বাস্তবসম্মত পোশাক ডিজাইনের কারণে ফ্যাশনবিষয়ক ম্যাগাজিনগুলোতেও বেশ প্রশংসিত হয়েছিলেন ২৮ বছর বয়সী ডিজাইনার।সেরের কর্মশক্তি ফ্যাশন শিল্পকে গতিময় করেছে’—গত বছর ভোগ ম্যাগাজিন তার সম্পর্কে মন্তব্য করেছিল। সম্প্রতি তিনি যে মাস্কগুলো ব্যবহার করেছেন, সেগুলো তার ফ্যাশন হাউজদূষণবিরোধী মাস্কহিসেবে বর্ণনা করেছে।

সপ্তাহে সেরে আরো বেশ কয়েকটি শোতে অনেক পোশাক প্রদর্শন করেছেন। প্রতিটি শোয়ে মডেলদের মুখমণ্ডল ঢাকা পোশাক পরে আসতে দেখা গেছে।

কেবল মডেলরাই নয়, প্যারিস ফ্যাশন উইকের ক্যাটওয়াক শোতে তাদের পাশাপাশি উপস্থিত অডিয়েন্সদের মধ্যেও কয়েকজন মাস্ক পরেছিলেন।

করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী দেশের বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিকে বেশ ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। ভাইরাসের কারণে বেশ কয়েকটি ইভেন্ট ট্যুর স্থগিত বা বাতিল করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার, গ্রিন ডে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে স্বাস্থ্য ভ্রমণ নিয়ে উদ্বেগের কারণে আসন্ন এশিয়া ট্যুর স্থগিত করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

এদিকে কোরিয়ান পপ গ্রুপ বিটিএস স্বাস্থ্যসংক্রান্ত উদ্বেগের কারণে কয়েকটি লাইভ শো বাতিল করেছে। যেগুলো আগামী এপ্রিলে হওয়ার কথা ছিল। দলটির মোবাইল ফ্যান প্লাটফর্মে কোরিয়ান ভাষায় লেখা এক বিবৃতিতে কথা বলা হয়েছিল। আরো লিখেছিল, ‘দয়া করে বোঝার চেষ্টা করুন। অনেক চিন্তাভাবনা সতর্কতার সঙ্গে বিষয়টি বিবেচনা করেই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

অনেক দেশের মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া করোনাভাইরাস দ্বারা খুব বেশি প্রভাবিত হয়েছে। দেশটি চীনের বাইরে সবচেয়ে বেশি করোনার প্রাদুর্ভাবে আক্রান্ত।

 

সূত্র: বিবিসি

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন