বুধবার | মে ২৭, ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

পণ্যবাজার

এক দশকের মধ্যে পাম অয়েলের সর্বোচ্চ দরপতন

বণিক বার্তা ডেস্ক

দীর্ঘদিন ধরে মালয়েশিয়ার বাজারে পাম অয়েলের দরপতন অব্যাহত রয়েছে। সম্প্রতি পণ্যটির দাম আগের তুলনায় আরো কমে এসেছে। শুক্রবার ভবিষ্যতে সরবরাহ চুক্তিতে পাম অয়েলের দাম টনপ্রতি প্রায় শতাংশ কমেছে। এর মধ্য দিয়ে পাম অয়েলের সাপ্তাহিক গড় দামে এক দশকের বেশি সময়ের মধ্যে সবচেয়ে বড় পতন দেখা গেছে। খবর স্টার অনলাইন রয়টার্স।

বুরসা মালয়েশিয়া ডেরিভেটিভস এক্সচেঞ্জে এদিন মে মাসে সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি টন পাম অয়েল ৩২২ রিঙ্গিত (মালয়েশিয়ান মুদ্রা) বা ৫৪৮ ডলার ২৯ সেন্টে বিক্রি হয়েছে, যা আগের দিনের তুলনায় টনপ্রতি ১৩৭ রিঙ্গিত কম। একদিনের ব্যবধানে পাম অয়েলের দাম কমেছে দশমিক ৫৭ শতাংশ। গত বছরের ২৩ অক্টোবরের পর মালয়েশিয়ার বাজারে এটাই পাম অয়েলের সর্বনিম্ন দাম।

সর্বশেষ সপ্তাহে মালয়েশিয়ার বাজারে প্রতি টন পাম অয়েলের সাপ্তাহিক গড় দামে ১১ দশমিক ৪৪ শতাংশ পতন দেখা গেছে। ২০০৮ সালের অক্টোবরের পর পাম অয়েলের সাপ্তাহিক গড় দামে এত বড় পতন আর দেখা যায়নি। টানা দুই মাস ধরে মালয়েশিয়ার বাজারে পাম অয়েলের দরপতন অব্যাহত রয়েছে। ধারাবাহিকতায় ফেব্রুয়ারিতে পণ্যটির মাসভিত্তিক গড় দাম কমেছে ১০ দশমিক শতাংশ।

স্থানীয় ট্রেডাররা জানান, জ্বালানি পণ্যের দরপতনের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে সয়াবিন তেলসহ অন্যান্য ভোজ্যতেলের দাম কমতির দিকে রয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে মালয়েশিয়ান পাম অয়েলের বাজারেও। একই সঙ্গে প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের কারণে দেশটি থেকে চীনের বাজারে পণ্যটির রফতানি প্রায় স্থবির হয়ে পড়েছে। পরিস্থিতি পাম অয়েলের রেকর্ড দরপতনে প্রভাবক হিসেবে কাজ করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন