বৃহস্পতিবার| এপ্রিল ০২, ২০২০| ১৮চৈত্র১৪২৬

দেশের খবর

নারায়ণগঞ্জে তাবলিগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, মসজিদে ভাঙচুর

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের তারাবো এলাকায় মতবিরোধের জেরে তাবলিগ জামাতের দিল্লির মাওলানা সাদ পন্থী এবং বাংলাদেশে তাবলিগের মুরুব্বি মাওলানা জুবায়েরপন্থীদের মধ্য ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ, সংঘর্ষ এমনকি মসজিদ ভাঙচুরের মতো ঘটনা ঘটেছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে রূপগঞ্জের তারাবো এলাকার মারকাজ মসজিদে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এইসময় মারকাজ মসজিদের চারপাশের জানালার কাঁচসহ বিভিন্ন স্থাপনায় ভাঙচুর চালানো হয়। সংঘর্ষে উভয় গ্রুপের কমপক্ষে আট থেকে ১০ জন মুসল্লি আহত হয়েছে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তাবলিগ জামায়াতের আমির মাওলানা জুবায়ের পন্থী ও  মাওলানা সাদ পন্থী দুই গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে আমির কে হবেন, কার নেতৃত্বে তাবলিগ জামায়াত চলবে এ নিয়ে মতবিরোধ ও দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এই বিরোধের জের ধরেই মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে জুবায়েরপন্থী স্থানীয় নেতা জাহাঙ্গীর আলমের সাথে মারকাজ মসজিদ সংলগ্ন একটি মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ও সাদপন্থী গ্রুপের নেতা আব্দুল কাইয়ুম এর সাথে মতবিরোধ নিয়ে প্রথমে তর্কাতর্কি পরে সংঘর্ষে রূপ নেয়। এক পক্ষ আরেক পক্ষের উপর লাঠিসোটা ইটপাটকেল নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে। শুরু হয় দুইপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপ। এতে উভয় গ্রুপের কমপক্ষে ৮ থেকে ১০ জন মুসল্লি আহত হয়। হামলা মারকাজ মসজিদের চারপাশের জানালার কাচ ও মসজিদের বিভিন্ন স্থাপনা ভাঙচুর করা হয়। পরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, তাবলিগ জামায়াতের মাওলানা জুবায়ের পন্থী ও মাওলানা সাদ পন্থীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা বিরোধের জের ধরেই রুপগঞ্জ তারাবো দুই পক্ষের মধ্যে মঙ্গলবার রাতে সংঘর্ষ বাঁধে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এসময় মসজিদের জানালা ভাঙচুর করা হয়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। কোন গ্রুপ ই থানায় অভিযোগ বা মামলা দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন