বৃহস্পতিবার| এপ্রিল ০২, ২০২০| ১৮চৈত্র১৪২৬

দেশের খবর

মানিকগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড

বণিক বার্তা প্রতিনিধি মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে এক যুবকের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল গতকাল রায় ঘোষণা করা হয় সময় আসামি হযরত আলী বেপারী (৩৫) আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন

নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি একেএম নূরুল হুদা রুবেল জানান, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার ফাড়ীরচর গ্রামে নূরুল হকের ছেলে হযরত আলী বেপারীর (৩৫) সঙ্গে ২০০০ সালে একই গ্রামের মামলার বাদী মোন্নাফ বেপারীর মেয়ে রোকসানা আক্তারের (২৫) বিয়ে হয় বিয়ের পর তাদের ঘরে একটি কন্যাসন্তানের জন্ম হয় কন্যাসন্তান জন্মের পর রোকসানাকে যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে হযরত আলী বেপারী এছাড়া যৌতুক দাবি করে স্ত্রী রোকসানাকে শারীরিক মানসিকভাবে নির্যাতনও করে তার স্বামী

তিনি আরো জানান, ২০০৩ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর হযরত আলী বেপারী রোকসানার বাবার বাড়িতে আসে পরে সে যৌতুক বাবদ লাখ টাকা দাবি করে রোকসানার বাবা মোন্নাফ বেপারী যৌতুক দিতে অস্বীকার করে এক পর্যায়ে তার সঙ্গে হযরত আলী বেপারীর কথাকাটাকাটি হয় ওইদিনই রোকসানা তার স্বামীর সঙ্গে শ্বশুরবাড়ি চলে যায় পরে সেই রাতেই স্বামী হযরত আলী তার স্ত্রী রোকসানাকে হত্যা করে রাত ১১টার দিকে মরদেহ বারান্দার আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে সে সময় প্রতিবেশীরা তা দেখে ফেলায় ঘটনা জানাজানি হয়ে যায় পরদিন ২৮ সেপ্টেম্বর রোকসানার বাবা মোন্নাফ বেপারী বাদী হয়ে মানিকগঞ্জ সদর থানায় মেয়েকে হত্যার অভিযোগে মামলা করেন ঘটনার ছয় বছর পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বর হযরত আলী বেপারীকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন এর মধ্যে আসামি হযরত আলী বেপারী আদালত থেকে জামিন নিয়ে গা ঢাকা দেয়

আদালতে মোট নয়জনের সাক্ষ্য নেয়া হয় বিচারিক কার্যক্রম শেষে আসামি হযরত আলী বেপারীর বিরুদ্ধে তার স্ত্রী রোকসানা আক্তারকে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মানিকগঞ্জ নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আলী হোসাইন আসামিকে ফাঁসির রজ্জুতে ঝুঁলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার রায় দেন

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন