বুধবার | জুলাই ১৫, ২০২০ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭

ঈপ্সনীয়

ফ্যাশনের নান্দনিক ব্যাগ...

ফিচার ডেস্ক

সাম্প্রতিক সময়ে পোশাকের সঙ্গে সঙ্গে ফ্যাশনের অন্যান্য অনুষঙ্গও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এর মধ্যে অন্যতম ব্যাগ। হ্যান্ডব্যাগ কিংবা ঝোলানোযেকোনো ধরনের ব্যাগই এখন ফ্যাশনের উপযোগী। যারা প্রতিদিন সুন্দর ও নান্দনিক সব ব্যাগ ঘাড়ে নিয়ে ঘুরতে পছন্দ করেন, তাদের জন্য আনন্দের বার্তা আছে। ডায়র তার স্যাডল ব্যাগ ও ভার্জিল অ্যাবলো লুই ভিঁতোর ইউনিক ব্যাগের সমন্বয়ে কিছু ব্যাগ তৈরি করেছে। এগুলো এবারের ফ্যাশন উইক শো-গিয়ারে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। আকর্ষণীয় ব্যাগগুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক

গুচি মরফিয়াস শোল্ডার ব্যাগ। এগুলো মূলত হ্যান্ডব্যাগ। লেদারের তৈরি। হালকা রঙের লম্বাকৃতি ব্যাগ। ব্যাগের অবয়ব লাল রঙের। ব্যাগের ওপরে স্বর্ণের আদলে ডাবলজি অক্ষর বসানো আছে। চেইন সিস্টেম ব্যাগের অভ্যন্তরে রয়েছে লাল রঙের রেখা।

এর পরের তালিকায় রয়েছে ভার্সেস ব্ল্যাক লেদার ম্যান পার্স শোল্ডার ব্যাগ। পুরুষদের কালো মানিব্যাগের মতো ব্যাগটি ঘাড়ে নেয়ার জন্য বেল্ট লাগানো আছে। মসৃণ লেদারের তৈরি ব্যাগটির সামনের দিকে স্বর্ণের রঙে রাঙানো চেইন রয়েছে। ভেতরের জিনিসপত্র যেন নিরাপদ থাকে, সেজন্য একটি সেফটি পিন ব্যাগের মুখে যুক্ত করা আছে।

সাদা রঙের লিন্ডারর্স ব্যাগগুলোও কম যায় না। এগুলো কটন ক্যানভাস দিয়ে তৈরি। ব্যাগের মধ্যে অনেকটা সিলভারের আভা রয়েছে। ব্যাগের বেল্টগুলো ছোট হলেও এগুলো হাতের পাশাপাশি ঘাড়ে নেয়ারও উপযোগী।

জ্যাকমাসের এই আকর্ষণীয় ব্যাগগুলো থেকে সহজে কেউ দৃষ্টি এড়াতে পারবে না। ব্যাগগুলো ছোট কিন্তু বৈচিত্র্যময়। ব্যাগ ছোট হলেও ব্যাগের স্ট্র্যাপ অর্থাৎ ফিতা অনেক বড়। চেইন সিস্টেম ব্যাগ। রঙিন ব্যাগটির ওপর কালো টেক্সট রয়েছে। এ গ্রীষ্মে এসব নান্দনিক ব্যাগগুলো ঘাড়ে নিয়ে ঘুরে বেড়ানোর জন্য দারুণ।

পাজল ব্যাগ। হুম, জোনাথন অ্যান্ডারসনের পাজল ব্যাগগুলো সবার নজর কেড়েছে। অনেকটা জ্যামিতিক ডিজাইনের। হাতে এবং ঘাড়ে দুভাবেই বহন করতে পারবেন।

ক্যামেরা স্টাইলের ব্যাগগুলোও কিন্তু পিছিয়ে নেই। বরং বলা চলে এটি একটু ইউনিক ব্যাগই বটে। ব্যাগগুলো সত্যিই দেখতে ক্যামেরার মতো। কালো বেল্টের ব্যাগগুলো ডিজাইন করেছে ভার্জিল অ্যাবোলা। যারা একটুখানি ব্যতিক্রমী ব্যাগ খুঁজছেন, তারা এ ধরনের ব্যাগ নিজেদের সংগ্রহে রাখতে পারেন।

আরেক ধরনের ব্যাগ রয়েছে। চারকোণাকৃতির ব্যাগগুলোর স্ট্র্যাপ অত্যন্ত বৈচিত্র্যময়। খুব কমই এ ধরনের স্ট্র্যাপ দেখা যায়। ব্যাগের মূল অবয়ব খুব বেশি বড় নয় এবং দেখতে পুরনো দিনের ট্রাংকের মতো। স্ট্র্যাপের দুই দিকে সিলভারের চেইনযুক্ত আছে। আর মাঝের অংশটি কালো রঙের এবং লেদারের তৈরি। বেশ মোটা। বোঝাই যাচ্ছে হাতে নিয়ে বেশ আরাম অনুভূত হবে।

ব্যাগের এ তালিকায় ক্রস ব্যাগও রয়েছে। এ ব্যাগগুলোও ব্যতিক্রমী। খুব ছোট ব্যাগ এগুলো। ব্যাগগুলো ডিজাইন করেছে প্রাডার। কালো রঙের লেদারের ব্যাগটিতে প্রাডার সাইন রয়েছে, চেইন বেশ মোটা। যেকোনো জায়গায় এ ব্যাগ ব্যবহার করতে পারবেন। কোথাও ঘুরতে গেলে চট করে নিয়ে যেতে পারেন ব্যাগটি। ব্যাগগুলো ছোট হলেও প্রয়োজনীয় ছোটখাটো নানা জিনিস রাখার মতো জায়গা রয়েছে।

এসব ব্যাগ যারা কিনতে চান, দেরি না করে এক্ষুনি অর্ডার করে ফেলুন। দেরি করলে ব্যতিক্রমী ব্যাগগুলো আপনার হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে।

 

সূত্র: হাইপবিস্ট

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন