বৃহস্পতিবার| ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০| ৭ফাল্গুন১৪২৬

শেয়ারবাজার

শেষ কার্যদিবসে বড় উল্লম্ফন

এক বছরের সর্বোচ্চ লেনদেন ডিএসইতে

নিজস্ব প্রতিবেদক

পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগে বিশেষ তহবিল গঠনসংক্রান্ত বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার জারির পর টানা তিনদিন সূচকে উত্থান দেখল দেশের শেয়ারবাজার। বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে দশমিক ৮৬ শতাংশ। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসইএক্স বেড়েছে প্রায় শতাংশ। সূচকের পাশাপাশি দুই স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেনও বেড়েছে। গতকাল ডিএসইতে ৭৩০ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা গত এক বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। সর্বশেষ গত বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৮৯১ কোটি টাকার শেয়ার। এর পরের কার্যদিবসেই লেনদেন এক লাফে ৬১১ কোটিতে নেমে গিয়েছিল।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, গতকাল লেনদেনের শুরু থেকেই ক্রয় চাপের কারণে সূচক ঊর্ধ্বমুখী ছিল। দিন শেষে ডিএসইএক্স প্রায় ৮৪ পয়েন্ট বেড়ে হাজার ৫৬৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল হাজার ৪৮০ পয়েন্টে। এদিন ডিএসইর ব্লুচিপ সূচক ডিএস-৩০ আগের দিনের চেয়ে প্রায় ২০ পয়েন্ট বেড়ে দিন শেষে হাজার ৫৩৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের দিন যা ছিল হাজার ৫১৬ পয়েন্ট। ডিএসইর শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস দিনের ব্যবধানে ১৫ পয়েন্ট বেড়ে গতকাল হাজার ৪৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের দিন শেষে যা ছিল হাজার ৩০ পয়েন্ট। আর নতুন চালু হওয়া সিডিএসইটি ১৩ পয়েন্ট বেড়ে ৯১৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের দিন যা ছিল ৯০৩ পয়েন্টে।

গতকাল এক্সচেঞ্জটিতে ৭৩০ কোটি ৫৭ লাখ টাকার সিকিউরিটিজ হাতবদল হয়, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ৬৫৭ কোটি ১৯ লাখ টাকায়। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৬টি কোম্পানি, মিউচুয়াল ফান্ড করপোরেট বন্ডের মধ্যে দিন শেষে দর বেড়েছে ২৫৯টির, কমেছে ৬৫টির আর অপরিবর্তিত ছিল ৩২টি সিকিউরিটিজের বাজারদর।

খাতভিত্তিক লেনদেন চিত্রে দেখা যায়, গতকাল ডিএসইর মোট লেনদেনের ১৬ শতাংশ দখলে নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে প্রকৌশল খাত। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ যৌথভাবে দখলে নিয়েছে বস্ত্র এবং ওষুধ রসায়ন খাত। ১২ শতাংশ দখলে নিয়ে তৃতীয় স্থানে ছিল বিদ্যুৎ জ্বালানি খাত। আর শতাংশ দখলে নিয়ে চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে বিবিধ খাত।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষ সিকিউরিটিজ ছিল খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যাল, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, এসএস স্টিল, ওরিয়ন ইনফিউশন, ডরিন পাওয়ার, এডিএন টেলিকম, সামিট পাওয়ার বেক্সিমকো লিমিটেড।

গতকাল এক্সচেঞ্জটিতে দরবৃদ্ধির তালিকায় শীর্ষে ছিল ফার কেমিক্যাল, এমএল ডায়িং, সায়হাম টেক্সটাইল, ওরিয়ন ফার্মা, লিগ্যাসি ফুটওয়্যার, এএফসি এগ্রো বায়োটেক, আফতাব অটোমোবাইল, আরএসআরএম, অ্যাকটিভ ফাইন কেমিক্যাল মাইডাস ফিন্যান্সিং।

অন্যদিকে দরপতনে শীর্ষে ছিল সমতা লেদার, সাফকো স্পিনিং, বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফিন্যান্স কোম্পানি, রেনউইক যজ্ঞেশ্বর, নর্দান জুট ম্যানুফ্যাকচারিং, আইএফআইএল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ান, মেঘনা পেট, এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ড, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক।

দেশের আরেক শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে গতকাল প্রধান সূচক সিএসসিএক্স দিনের ব্যবধানে ১৬৫ পয়েন্ট বেড়ে হাজার ৪৩২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আগের কার্যদিবসে সূচকটির অবস্থান ছিল হাজার ২৬৭ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল লেনদেন হওয়া ২৬০টি কোম্পানি মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ১৯৪টির দরবৃদ্ধির বিপরীতে দর হারিয়েছে ৪২টির আর অপরিবর্তিত ছিল ২৪টির বাজারদর। গতকাল এক্সচেঞ্জটিতে ৭৩ কোটি টাকার সিকিউরিটিজ হাতবদল হয়েছে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ১৯ কোটি টাকা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন