বুধবার| এপ্রিল ০১, ২০২০| ১৭চৈত্র১৪২৬

ভ্রমণ

জাপানের বরফ গ্রামে

ফিচার ডেস্ক

শীতের রানী প্রকৃতি থেকে বিদায় নিতে শুরু করেছে। লাল, হলুদ, কমলা, সবুজের মতো উজ্জ্বল রঙগুলোর খেলা প্রকৃতিতে জানান দিচ্ছে বসন্তের আগমন। তবে এখনো কিছুদিন শীতের ভ্রমণ উপভোগ করা যাবে। এশিয়ার অনেক দেশেই এখনো মাসখানেক শীতের ভ্রমণ উপভোগ করা যাবে। এর মধ্যে জাপানের বরফ গ্রাম হতে পারে আপনার সেরা পছন্দের।

পৃথিবীর অনেক দেশই শীত মৌসুমে বরফে আচ্ছাদিত থাকে বা তুষারপাত হয়। আবার আমাদের মতো অনেক দেশেই এমনটা ঘটে না। এজন্য অনেকেরই বরফে আচ্ছাদিত ও তুষারপাত হওয়া অঞ্চলগুলোতে ঘুরতে যাওয়ার মনোবাসনা থাকে। তুষার ও বরফ উপভোগের জন্য অনেকেই শীতের এ ভ্রমণ মৌসুমে এমন অঞ্চলগুলোতে ঘুরতে যাচ্ছেন। তুষারপাত হওয়া অঞ্চলে তুষারে পুরো এলাকা আচ্ছাদিত থাকে। কিন্তু যদি এমন হয়, আপনি একটি হোটেলে থাকছেন, সেখানে হোটেলের কাঠামো, ডাইনিং টেবিল, টিভি টেবিল, শোকেস, বিছানা পর্যন্ত সব বরফের। স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশগুলোতে বরফের এমন হোটেলগুলোর জন্য সুপরিচিত। কিন্তু জাপানের আইস ভিলেজ বা বরফ গ্রাম এর থেকেও আপনাকে বেশি অভিজ্ঞতা দিতে পারে।


জাপানের উত্তরাঞ্চলীয় দ্বীপ হোকাইদোতে আপনি এ বরফ গ্রামটি পাবেন। দ্বীপটির রাজধানী সাপ্পোরো থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এ বরফ গ্রাম। আপনি যদি কোনো বরফের শহর ঘুরে দেখতে চান, যেখানে আপনি শীতের দুর্দান্ত পরিবেশ উপভোগ করতে পারবেন, তবে আইস ভিলেজ হতে পারে আপনার সেরা পছন্দের। বরফ গ্রামে যাওয়ার আগে তীব্র শীত থেকে বাঁচতে গরম কাপড় নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে নিন। কারণ সেখানকার তাপমাত্রা মাইনাস ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে যেতে পারে।

আপনি বরফ গ্রামের বরফ হোটেলে ঘুরে বেড়াতে পারেন, সেখানে কেবল বিছানাপত্র ছাড়া সবকিছুই বরফ দিয়ে তৈরি। আইস ক্যাফের বইয়ের তাকগুলো পর্যন্ত বরফের তৈরি। তবে সেখানকার হোটেলে স্যালমন ও পারমা হ্যামের সঙ্গে ডিম ও গরম স্যুপ দিয়ে আপনি ব্রেকফাস্ট সারতে পারবেন।


আইস ভিলেজের এক কর্মকর্তা লোনলি প্লানেটকে বলেছেন, শীতের জাদু অনুভব করতে তুষারের এ রহস্যময় বিশ্ব অতিথিদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছে। শীতের এ জাদু শিশুদের জন্যও উপযোগী। সেখানে বরফের বাদ্যযন্ত্র শেখানোর ব্যবস্থা থেকে শুরু করে বরফে খোদাই করার ক্লাস পর্যন্ত সব ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে। আর বরফের প্রার্থনাগৃহের চেয়ে বরফের জাদু আর কি হতে পারে?

জাপানের এ বরফ গ্রাম হোশিমু রিসোর্টের পাশেই অবস্থিত। তোমামু পাহাড়ের পাশের এ বরফ গ্রামটি শীতের প্রাকৃতিক দৃশ্যের এক অসাধারণ সৃষ্টি। ৩ দশমিক ২ হেক্টর বিস্তৃত এ গ্রামে ১১টি মনোরম বরফ গম্বুজ রয়েছে। এ অঞ্চলজুড়ে উপভোগ করার জন্য তুষারের প্রচুর ক্রিয়াকলাপ রয়েছে। এর মধ্যে বরফের মিষ্টির দোকান, একটি বরফ বার, বরফ বেকারি অন্যতম। তবে মূল ইভেন্টটি হলো বিকালের চা। প্রতি বিকালেটি ইভেন্ট হলেও বিকাল ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত প্রকৃত অর্থে গ্রামটি খোলা থাকে না। আইস ভিলেজে প্রবেশের শেষ সময় রাত সাড়ে ৯টা।

বরফ গ্রামে যেকোনো মানুষ একদিনের ভ্রমণ করতে পারবেন এবং রিসোর্টের অতিথিদের জন্য দীর্ঘস্থায়ী থাকার সুযোগ রয়েছে। বরফ গ্রামটি গেল ১০ ডিসেম্বরে উদ্বোধন করা হয়েছে। এটি আগামী ১৪ মার্চ পর্যন্ত ভ্রমণকারীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। আইস গ্রামের প্রবেশ মূল্য ৫ ডলার।

 

সূত্র: লোনলি প্লানেট ও জাপান টুডে


এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন