শনিবার| ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০| ১৫ফাল্গুন১৪২৬

খবর

গত বছর চাকরি হারিয়েছেন ৩২ হাজার পোশাক শ্রমিক : সংসদে বাণিজ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

তৈরি পোশাক খাতের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএর আওতাধীন ৬৩টি কারখানা ২০১৯ সালে বন্ধ হয়ে গেছে। এজন্য ৩২ হাজার ৫৮২ জন শ্রমিক চাকরি হারিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। 

গতকাল  জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য শামসুন নাহারের প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্যমন্ত্রী তথ্য জানান। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়।

বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) আওতাধীন কোনো কারখানা আনুষ্ঠানিকভাবে বন্ধ হয়নি উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সালে বিকেএমইএর আওতাধীন হাজার ২০০ কারখানার মধ্যে ৯২০টি কারখানা সদস্যপদ নবায়ন করেছে। অবশিষ্ট কারখানাগুলো সক্রিয় নেই বলে ধারণা করা হচ্ছে। রফতানি আদেশ পেলে কারখানাগুলো পুনরায় সক্রিয় হতে পারে বলে বিকেএমইএ থেকে জানানো হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর- আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন খানের প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানান, ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি  থেকে এপ্রিল পর্যন্ত পেঁয়াজ সংগ্রহের মৌসুম। মৌসুম শুরু হলে সরবরাহ বৃদ্ধি পাবে এবং মূল্য স্থিতিশীল হবে বলে আশা করা যায়।

সংসদ সদস্যের আরেক প্রশ্নের উত্তরে টিপু মুনশি জানান, গত বছর  ১৬৯ দশমিক ১১ মিলিয়ন ডলার মূল্যের খাদ্যশস্য রফতানি করা হয়েছে।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য মো. আছলাম হোসেন সওদাগরের প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, ২০১৯ সালে বাণিজ্য মেলায় রাজস্ব খাতে ভ্যাট বাবদ ১২ কোটি লাখ ৮৯ হাজার ৮১৭ টাকা আদায় হয়েছে।

বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য বেগম রত্না আহমেদের পৃথক প্রশ্নের উত্তরে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার জানান, চলতি আমন সংগ্রহ মৌসুমে ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা লাখ ২৬ হাজার ৯৯১ টন। এর বিপরীতে ২৭ জানুয়ারি ২০১০ পর্যন্ত লাখ ৬১  হাজার ৩২৩ টন ধান সংগ্রহ করা হয়েছে। বাবদ ৬৭৯ কোটি ৪৩ লাখ ৯৮ হাজার টাকা ব্যয় করা হয়েছে।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী জানান, বর্তমানে দেশে ব্যবহার অনুপযোগী ১৪৪টি খাদ্যগুদাম

রয়েছে। এসব গুদামের ধারণক্ষমতা ৮৪

হাজার ২১০ টন।

সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য নাজমা আক্তারের প্রশ্নের উত্তরে প্রবাসী কল্যাণ বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ জানান, বাংলাদেশ  থেকে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে (৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত) কোটি ২৮ লাখ ৯৯ হাজার ২৮৩ জন কর্মী বিদেশ  গেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন