শনিবার | জুলাই ১১, ২০২০ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭

শেষ পাতা

সচল ঢাকা গড়ার অঙ্গীকার আতিকের, তাপসের ইশতেহার শিগগিরই

নিজস্ব প্রতিবেদক

নির্বাচনী ইশতেহারে সচল ঢাকা গড়ার অঙ্গীকার থাকবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। আজ সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে নির্বাচনী ইশতেহার তুলে ধরবেন তিনি। আর ২৮ বা ২৯ জানুয়ারির মধ্যে নিজের নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করবেন দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে দলটির মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

গতকাল গুলশানে গণসংযোগকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে আতিকুল ইসলাম বলেন, রোববার (আজ) আমার ইশতেহার দেব, সেখানে চমক থাকবে। থাকবে আধুনিক, সচল, সুস্থ মানবিক ঢাকা গড়ার অঙ্গীকার।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন হবে আধুনিক, গতিময়, সচল, সুস্থ মানবিক ঢাকা। নাগরিকদের নিরাপত্তা যেমন নিশ্চিত করা হবে, তেমনি খেলাধুলার জন্য থাকবে পর্যাপ্ত মাঠ, পার্ক। আমি চাই আমাদের আগামী প্রজন্ম বেড়ে উঠুক সুস্থতায়। তিনি বলেন, একটি সুস্থ, সচল, আধুনিক, গতিময়, মানবিক সবুজায়ন ঢাকা গড়তে আপনাদের সামনে এসেছি। আমি কথা দিচ্ছি, ভোটে যদি জয়লাভ করতে পারি, তাহলে সবকিছু বাস্তবায়নের চেষ্টা করব।

আওয়ামী লীগ কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে বলতে পারি, বিজয়ী হলে প্রতিটি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করব। আর তাই আগামী ফেব্রুয়ারি নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে বিজয়ী করবেন, আমি বিশ্বাস করি।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে গিয়ে কোনোভাবেই জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করা চলবে না। যানজট যেন সৃষ্টি না হয়, সেদিকে নেতাকর্মীদের খেয়াল রাখতে হবে। মানুষের দুর্ভোগ হয় এমন কোনো কাজ নেতাকর্মীরা করবেন না। আমি নির্বাচিত হলে জনগণের সেবক হয়ে কাজ করতে চাই।

সময় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচিসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ২৮-২৯ জানুয়ারির মধ্যে নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করবেন বলে জানিয়েছেন শেখ ফজলে নূর তাপস। গতকাল রাজধানীর বাবুবাজার সেতুর নিচে নির্বাচনী গণসংযোগ চলাকালে সাংবাদিকদের কথা জানান তাপস। তিনি বলেন, আমরা উন্নয়নের যে রূপরেখা প্রকাশ করেছি, সেটা ঢাকাবাসী সাদরে গ্রহণ করেছে। আমরা যেখানে যাচ্ছি, বিপুল সাড়া পাচ্ছি। আমরা আশা করছি, ২৮ বা ২৯ জানুয়ারির মধ্যে বিস্তারিত নির্বাচনী ইশতেহার ঢাকাবাসীর কাছে প্রকাশ করতে পারব।

তাপস বলেন, আমাদের পাঁচটি রূপরেখাআমাদের ঐতিহ্যের ঢাকা, আমাদের সুন্দর ঢাকা, সুশাসিত ঢাকা, আমাদের সচল ঢাকা উন্নত ঢাকাগড়ার লক্ষ্যে ফেব্রুয়ারির নির্বাচন ঢাকাবাসীর জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন। নির্বাচনে ঢাকাবাসী তাদের রায় প্রদানের মাধ্যমে উন্নত ঢাকা গড়ার নবসূচনা, নবযাত্রা আমরা করতে চাই। আমি বিশ্বাস করি, ঢাকাবাসী নৌকায় তাদের রায় দিয়ে আমাকে সেবক হিসেবে নির্বাচিত করবে। আমাদের নিজ নিজ ওয়ার্ডে আমাদের কাউন্সিলরদের নির্বাচিত করলে পথচলা বেগবান হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে শেখ তাপস বলেন, আমরা গণসংযোগ করছি। ঢাকাবাসীর স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া পাচ্ছি। বিপুল নেতাকর্মীসহ আমরা মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘরে ঘরে যাচ্ছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে লক্ষ করছি, আমাদের প্রতিপক্ষ শুধু অভিযোগ নিয়ে ব্যস্ত। তাদের ঢাকাবাসীর জন্য উন্নয়নের কোনো রূপরেখা নেই। ঢাকাবাসীর মানোন্নয়নে কোনো কার্যক্রম নেই। তারা শুধু জাতীয় রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত। আমরা ঢাকাবাসীর উন্নয়ন নিয়ে ব্যস্ত।

তিনি বলেন, বংশাল, কোতোয়ালিবাসীর জন্য ৩০ বছর মহাপরিকল্পনার আওতায় উন্নত ঢাকা গড়ে তুলব। এলাকায় যে ঐতিহ্য রয়েছে, সেটি সংরক্ষণ করব বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরব। সময় তিনি নেতাকর্মীদের সুশৃঙ্খলভাবে প্রচারণায় অংশ নিতে আহ্বান জানান।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন