শুক্রবার| ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০| ১৪ফাল্গুন১৪২৬

শেষ পাতা

বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক

রোগী দেখার ফি নির্ধারণ করে দেবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক, চেম্বারে ডাক্তারদের রোগী দেখা বাবদ ফি আদায়ে একটি নীতিমালা প্রণয়নের বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে সরকার। জাতীয় সংসদে গতকাল টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তরে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এ কথা জানান। সংরক্ষিত আসনের এমপি গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার এ প্রশ্ন উত্থাপন করেন।

জাহিদ মালেক জানান, যোগ্যতা ও পদমর্যাদা অনুযায়ী জেনারেল প্র্যাকটিশনার থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পর্যন্ত রোগী দেখার ক্ষেত্রে সর্বমহলে গ্রহণযোগ্য ভিজিটের হার নির্ধারণের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। আশা করা যায়, ভবিষ্যতে তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।

সরকারি দলের আরেক সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, গত বছর সারা দেশে নকল-ভেজাল ওষুধ উৎপাদন ও বিক্রির দায়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ২ হাজার ১৪৫টি মামলা করা হয়েছে। জরিমানা আদায় করা হয়েছে ১২ কোটি ৪১ লাখ ৬ হাজার ৪৮৪ টাকা। ৩৯ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। সিলগালা করা হয়েছে ৪৪টি প্রতিষ্ঠান। আনুমানিক ৩১ কোটি ৭৬ লাখ টাকা মূল্যের নকল-ভেজাল ওষুধ জব্দ ও ধ্বংস করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জিএমপি (গুড ম্যানুফ্যাকচারিং প্র্যাকটিস) গাইডলাইন অনুসরণ না করায় ৪১টি ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন লাইসেন্স সাময়িক বাতিল করা হয়েছে।

বিএনপির হারুনুর রশীদের প্রশ্নের উত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, উচ্চপর্যায়ের তদন্ত দল গঠন করে সারা দেশের হাসপাতালগুলোয় যন্ত্রপাতি ও ওষুধ ক্রয়ে অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়ে তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে এবং তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মনিটরিং সেল সব হাসপাতালের যন্ত্রপাতি ও ওষুধ ক্রয়সংক্রান্ত কার্যক্রম নিয়মিত মনিটরিং করছে। ফলে বর্তমানে অনিয়ম ও দুর্নীতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে।

এবার শতভাগ হজযাত্রীর ইমিগ্রেশন ঢাকায়: সরকারি দলের সংসদ সদস্য মোরশেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে সংসদে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ জানান, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৩০ জুলাই এ বছরের পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে। এ বছরের পবিত্র হজ পালনের জন্য সৌদি সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের চুক্তি হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী চলতি বছরের জন্য নির্ধারিত হজযাত্রীর সংখ্যা ১ লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৭ হাজার ১৯৮ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ২০ হাজার জন হজ পালনের সুযোগ পাবেন। এ বছর শতভাগ হজযাত্রীর ইমিগ্রেশন ঢাকায় সম্পন্ন করার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন