বৃহস্পতিবার| ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০| ১৪ফাল্গুন১৪২৬

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে পদচারণা বাড়াচ্ছে চীনা টেক্সটাইল কোম্পানিগুলো

বণিক বার্তা ডেস্ক

আরো নতুনত্ব, হালনাগাদ সেবা বৃহত্তর বৈশ্বিক উপস্থিতির মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে নিজেদের উপস্থিতি সক্রিয়ভাবে বাড়াচ্ছে চীনা টেক্সটাইল কোম্পানিগুলো। সম্প্রতি শিল্পসংশ্লিষ্টরা তথ্য জানিয়েছেন। খবর সিনহুয়া।

চীনের টেক্সটাইল কোম্পানি রোমরোল আউটডোরের নির্বাহী পরিচালক মহাব্যবস্থাপক জিয়াং নান বলেন, ২০১৫ সালের পর থেকে আমরা বার্ষিক আয়ের শতাংশ নিজেদের গবেষণা উন্নয়ন প্রচেষ্টায় বিনিয়োগ করে আসছি। জিগাংসু প্রদেশভিত্তিক কোম্পানিটি বৈদেশিক ব্র্যান্ডগুলোর জন্য কাজ করে আসছে। সম্প্রতি নিউইয়র্কে শেষ হওয়া চায়না টেক্সটাইল অ্যান্ড অ্যাপারেল ট্রেড প্রদর্শনীতে ফ্যাশন শোর মাধ্যমে উপস্থিত খুচরা বিক্রেতা, ডিজাইনার ব্র্যান্ডগুলোর কাছে নিজেদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তিগুলো তুলে ধরে কোম্পানিটি। প্রদর্শনীতে রোমরোল আউটডোরের আলো শোষণকারী তাপমাত্রা সংবেদক বস্ত্র সবচেয়ে বেশি নজর কেড়েছে।

জিয়াং বলেন, আমরা এখনো জার্মানি জাপানের মতো দেশগুলোর কোম্পানির তুলনায় এক দশক পিছিয়ে রয়েছি। তবে এর মানে আমাদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার বিপুল সম্ভাবনাও রয়ে গেছে।

তিনি জানান, চীনা কোম্পানি কেবল বিদ্যমান বৃহৎ বাজারগুলোর দিকে নজর রাখতে অভ্যস্ত। কিন্তু অভ্যন্তরীণ বাজার পরিপূর্ণ আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সঙ্গে যোগাযোগ আরো কাছাকাছি হওয়ায় কোম্পানিগুলো বৈশ্বিক মঞ্চে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে এবং বৈশ্বিক বাজারে নিজেদের অংশগ্রহণ বাড়াতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে।

চলতি সপ্তাহের শুরুতে নিউইয়র্কের জ্যাভিটস সেন্টারে প্রদর্শনীটির আয়োজন করা হয়, যেখানে বিশ্বের ১৭টি দেশ অঞ্চল থেকে তিনশর বেশি অংশগ্রহণকারী নিজেদের পণ্য উপস্থাপন করে।

প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারীদের অর্ধেকের বেশি ছিল চীনা কোম্পানি। এসব কোম্পানি তুলা, ব্যবহারযোগ্য বস্ত্র, বুনন, কৃত্রিম পশম, এম্ব্রয়ডারি, লেস আরো বহু কিছু উৎপাদনে জড়িত।

চীনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় জিয়ামেন শহরের ব্র্যান্ড গ্রিট অ্যান্ড জেস্ট ২০১২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে নিজেদের শাখা স্থাপন করে। সাঁতার, অনুশীলন, ক্রীড়া দৈনন্দিন পোশাকের জন্য বিশেষায়িত কোম্পানিটি যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে প্রথম দিকে আসা প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি।

গ্রিট অ্যান্ড জেস্টের মার্কিন শাখার প্রেসিডেন্ট ম্যারি চুয়া বলেন, শ্রমসংস্থান প্রতিযোগিতামূলক দামের সুবিধার জন্য মার্কিন বাজারে পণ্য বিক্রি করা সহজ ছিল। কিন্তু এখন আর বাস্তবতা নেই। চুয়া বলেন, ২০১৫ সাল থেকে গ্রাহকদের সঙ্গে ব্যবসার জন্য কোম্পানিকে আরো বেশি ভ্যালু অ্যাডেড পণ্য হাজির করতে হচ্ছে।

কোম্পানিটির পরিষেবার মধ্যে কালেকশন বৃদ্ধি, একাধিক ভাষার প্রযুক্তি-প্যাকেজ, টেক্সটাইল ডিজাইন, প্রিন্ট ডিজাইন, গ্রাফিক ডিজাইন, ফ্যাব্রিক ট্রিম সোর্সিং, পরীক্ষা, হার্ডওয়্যার ডিজাইন, লেবেল বা প্যাকেজিং ডিজাইন এবং গার্মেন্ট ফিটিং পরীক্ষা রয়েছে। চুয়া জানান, প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে কোম্পানির অন্যতম শক্তির জায়গা হলো একটি পূর্ণাঙ্গ প্যাকেজ হাজির করা। এছাড়া কোনো স্টার্টআপের যদি পোশাক ডিজাইন সম্পর্কে ধারণা থাকে কিন্তু কোথায় শুরু করতে হবে না জানে, তবে তাদেরও সহায়তা করে গ্রিট অ্যান্ড জেস্ট।

যুক্তরাষ্ট্রের গ্রাহকদের নিজেদের নমনীয় সক্ষমতা প্রদর্শনের লক্ষ্যে বৈশ্বিক বাজারে পা রাখা চীনা কোম্পানির সংখ্যা ক্রমে বাড়ছে।

জিয়াংসু গৌতাই হুয়াসেং ইন্ডাস্ট্রিয়ার কোম্পানি লিমিটেডের সহকারী মহাব্যবস্থাপক জু ইয়ান জানান, তারা এরই মধ্যে ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়াসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বেশকিছু দেশের ম্যানুফ্যাকচারার্সদের সঙ্গে অংশীদারিত্ব স্থাপন করেছে। এছাড়া মিয়ানমারে তাদের এরই মধ্যে তিনটি কারখানা স্থাপন করা হয়েছে।

দু-তিন বছর আগে চীনের বাইরে বিকল্প ম্যানুফ্যাকচারিং ঘাঁটির প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করার পর সবকিছু শুরু করা হয় বলে জানিয়েছেন ইয়ান।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন