শনিবার| ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০| ১৫ফাল্গুন১৪২৬

খবর

রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনা

দুর্নীতির দেশ এখন বিশ্বে অর্থনৈতিক উদীয়মান শক্তিশালী দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে মন্ত্রী-এমপিরা বলেছেন, একসময়ের শাসনক্ষমতায় থাকা সরকারপ্রধানকে (খালেদা জিয়া) বলা হতো আকণ্ঠ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। এখন সেই দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী (শেখ হাসিনা) বিশ্বের অন্যতম সৎ, সাহসী, পরিশ্রমী প্রধানমন্ত্রীর স্বীকৃতি পেয়েছেন। সারা বিশ্বে বাংলাদেশ এখন অর্থনৈতিকভাবে উদীয়মান শক্তি। দেশের অগ্রযাত্রা বিএনপি-জামায়াতসহ সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর গাত্রদাহের কারণ হয়েছে। এরা দেশকে আবারো পেছনে ফেলতে নানা ষড়যন্ত্র করছে। এদের ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দিতে হবে।

প্রথমে স্পিকার . শিরীন শারমিন চৌধুরী এবং পরে ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে গতকাল রাতে জাতীয় সংসদের অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তারা কথা বলেন। আলোচনায় অংশ নেন আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, গৃহায়ন গণপূর্তমন্ত্রী অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম, বিমান পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, সরকারি দলের আবদুল আজিজ, শহিদুল ইসলাম বকুল, মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, জাতীয় পার্টির গোলাম কিবরিয়া টিপু প্রমুখ।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ঐক্যের প্রতীক হিসেবে৮১ সালে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার হাতে আমরা আওয়ামী লীগের পতাকা তুলে দিয়েছিলাম। বৈরী অবস্থায় দেশে ফিরে পিতার (বঙ্গবন্ধু) স্বপ্ন পূরণের কাজে তিনি হাত দেন। ২১ বছর সংগ্রাম করে৯৬ সালে প্রথম আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় নিয়ে আসেন শেখ হাসিনা। বিএনপি-জামায়াত জোটের দুঃশাসনের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া যুদ্ধাপরাধীদের মন্ত্রী বানান, আর আমাদের কারাগারে বন্দি করে নির্যাতন করেন। আমাদের হাতে হাতকড়া, আর তখন যুদ্ধাপরাধীদের গাড়িতে রক্তস্নাত জাতীয় পতাকা। স্বাধীনতার পর অনেকে বলেছিল, বাংলাদেশ হবে দারিদ্র্যের মডেল। কিন্তু আজ বিশ্বের সামনে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। বঙ্গবন্ধু দেশকে স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন, আর তার কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করছেন।

রেজাউল করিম বলেন, উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ দারিদ্র্যের দেশ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ বিশ্বের সামনে আজ উন্নয়নের রোল মডেল। একসময়ের শাসনক্ষমতায় থাকা সরকারপ্রধানকে (খালেদা জিয়া) বলা হতো আকণ্ঠ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। এখন সেই দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী (শেখ হাসিনা) বিশ্বের অন্যতম সৎ, সাহসী, পরিশ্রমী প্রধানমন্ত্রীর স্বীকৃতি পেয়েছেন, এজন্য আমরা গর্বিত।

মাহবুব আলী বলেন, বিমান একসময় ধ্বংসের পথে ছিল। আজ বিমান ঘুরে দাঁড়িয়েছে। পাঁচটি অত্যাধুনিক উড়োজাহাজ ক্রয় করে বাংলাদেশ বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে যে আমরা অর্থনৈতিকভাবে কতটা শক্তিশালী। বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকত কক্সবাজার সুন্দরবনে পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে বিদেশীদের জন্য সেফজোনসহ নানা পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

ডা. এনামুর রহমান বলেন, বিএনপি-জামায়াত আমলে হাওয়া ভবন ছিল দুর্নীতির আখড়া। খালেদা জিয়াসহ তার দুই পুত্র হাজার হাজার কোটি টাকা লুণ্ঠন করে বিদেশে পাচার করেছেন। অগ্নিসন্ত্রাস নাশকতা করে শত শত মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছেন তারা। এসব কারণে দেশের জনগণ তাদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন