শনিবার| ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০| ১৫ফাল্গুন১৪২৬

টকিজ

নাম থেকে ‘ফক্স’ মুছে ফেলছে ডিজনি

বণিক বার্তা অনলাইন

বিখ্যাত মার্কিন ফিল্ম স্টুডিও টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স গত বছর কিনে নিয়েছেন আরেক বিখ্যাত অ্যানিমেশন স্টুডিও ডিজনি। এবার তারা নাম থেকে ‘ফক্স’ শব্দটি ছেঁটে ফেলার চিন্তাভাবনা করছে। ধারণা করা হচ্ছে আগের মালিক মিডিয়া মুঘল রুপার্ট মারডকের সঙ্গে নৈতিক বিরোধের কারণেই চিহ্ন মুছে ফেলতে চাইছে ডিজনি। খবর বিবিসি। 

মার্কিন গণমাধ্যমগুলো বলছে, ডিজনি স্টুডিও ফক্স নিউজ নেটওয়ার্কের কোনো চিহ্ন বহন করতে চায় না। যদিও ডিজনি এ বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানায়নি। 

জানা গেছে, ‘ফক্স সার্চলাইট পিকচারস’ আর্টহাউস থেকেও বাদ যাবে ফক্স। শুধু থাকবে ‘ সার্চলাইট পিকচারস ’। গত শুক্রবার ডিজনির স্টাফ ই-মেইল ঠিকানা থেকেও ‘ফক্স’ শব্দটি বাদ দেয়া হয়েছে। 

গত বছরের মার্চে ৭ হাজার ১০০ কোটি ডলারে টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স ও ফক্সের অন্য মিডিয়া প্রতিষ্ঠান কিনে নেয় ডিজনি স্টুডিও। অ্যাভেটর ও টাইটানিকের মতো বিশাল বাজেটের বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেছে টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডিজনির এক কর্মকর্তা বলেন, আমি মনে করি, ফক্স নামের মানেই মারডক, আর এটি ক্ষতিকর।

‘টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স’ ১৯৩৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। রুপার্ট মারডকের নিউজ কর্পোরেশন ১৯৮০ এর দশকের মাঝামাঝি সময়ে এটি কিনে নেয়। নিউজ কর্পোরেশন পরে নিউজ করপোরেশন এবং টোয়েন্টি ফার্স্ট ফক্স এ বিভক্ত হয়। যা ডিজনি গত বছর টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্সসহ বিভিন্ন চলচ্চিত্র এবং টেলিভিশন স্টুডিওর মূল সংস্থা হিসেবে অধিগ্রহণ করে।

একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো বলছে, টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স স্টুডিওর সুপরিচিত ফ্যানফেয়ার থিম এবং সার্চলাইট লোগোটিতে কোনো পরিবর্তন আসবে না। টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স টেলিভিশন এবং ফক্স টোয়েন্টি ফার্স্ট টেলিভিশন স্টুডিও দুটিও এখন ডিজনির মালিকানাধীন । এগুলোর নামে কোনো পরিবর্তন আসবে কি না তা এখনো জানানো হয়নি।

এবিসি নেটওয়ার্কের মালিক হিসেবে ডিজনি মার্কিন গণমাধ্যম জগতে এরই মধ্যে প্রভাবশালী অবস্থান তৈরি করে ফেলেছে। প্রতিষ্ঠানটির স্ট্রিমিং পরিসেবা ডিজনি+ নেটফ্লিক্সকে চ্যালেঞ্জ করার মতো শক্তি নিয়ে আবির্ভুত হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন