শনিবার| ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০| ১৫ফাল্গুন১৪২৬

টকিজ

প্রথম ইরানি হিসেবে ওয়াক অব ফেমে অ্যান্ডি মাদাদিয়ান

ফিচার ডেস্ক

হলিউডের ওয়াক অব ফেমে গতকাল প্রথম ইরানি হিসেবে হাঁটলেন অ্যান্ডি মাদাদিয়ান। ২২ বছর বয়সে তিনি ইরান থেকে পালিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে চলে আসেন। শুরুতে তিনি জীবিকা নির্বাহের জন্য লস অ্যাঞ্জেলেসের নাইট ক্লাবে গিটার বাজাতেন।

অ্যান্ডি মাদাদিয়ানের বয়স এখন ৬৩। পপ গায়ক হিসেবে দুনিয়াজুড়ে তার খ্যাতি। তার সাফল্যের তালিকায় আরেকটি অধ্যায় যুক্ত হতে যাচ্ছেতিনি এবার হেঁটেছেন হলিউডের ওয়াক অব ফেমে। তার নামের তারকা স্থাপিত হবে ওয়াক অব ফেমের রাস্তায়।

পারসিয়ান এলভিস বা পারসিয়ান বোনো নামে পরিচিত এ ইরানি-আমেরিকান গতকাল হলিউডের ওয়াক অব ফেমে হাঁটার সম্মান পেয়েছেন। কয়েক সপ্তাহ ধরে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে রাজনৈতিক-সামরিক উত্তেজনা চলছে, এমন সময় অ্যান্ডের ওয়াক অব ফেমের সম্মান অনেককে অবাক করেছে। সম্প্রতি অ্যান্ডে বলেছেন, ‘একজন ইরানি-আমেরিকান শিল্পী হিসেবে আমার অবস্থানটা বেশ কঠিন। কারণ আমি যা সৃষ্টি করি, তা আমার আমেরিকান ও ইরানি ভক্তদের জন্য। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে এ দুই দেশ এখন দ্বন্দ্বে লিপ্ত।

অ্যান্ডি বলেছেন, ওয়াক অব ফেমে হাঁটা তার জন্যনতুন শুরু। ১৪টি অ্যালবাম প্রকাশের পর তার মুখে নতুন করে শুরুর বিষয়টি শুনে সাংবাদিকরা এ রকম ভাবনার কারণটি জানতে চেয়েছিলেন গত বৃহস্পতিবার। জবাবে অ্যান্ডি বলেছেন, ‘‘আমার কাছে এটা নতুনই...কারণ অনেক আমেরিকান আমাকে ও আমার সংগীতকে মাত্র আবিষ্কার করছেন। আমার বিশ্বাস এহলিউড তারকা অনেক নতুন দ্বার খুলে দেবে। লস অ্যাঞ্জেলেসে অনেক বড় ইরানি শিল্পী আছেন, পশ্চিমা দুনিয়ার কাছে তারা এখনো পরিচিত হয়ে ওঠেননি।’’ অ্যান্ডি মাদাদিয়ানের জন্ম ১৯৫৬ সালে ইরানের এক প্রত্যন্ত অঞ্চলে। চরম দরিদ্রতার মধ্যে দিয়ে কেটেছে তার শৈশব, কিন্তু তিনি গান ভালোবাসতেন। ছোটবেলায় স্কুলে তিনি গণিতে পারদর্শিতা দেখিয়েছিলেন, তাই পরিবারের আশা ছিল তিনি অর্থনীতিবিদ হবেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন