সোমবার | জুলাই ১৩, ২০২০ | ২৯ আষাঢ় ১৪২৭

টকিজ

হৃত্বিক থেকে অমিতাভ: বলিউড মাতানো কে এই তরুণ?

তরুণদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় টিকটক নিয়ে সমালোচনার কমতি নেই। তবে বিতর্কিত এই প্লাটফর্ম থেকেও বেরিয়ে আসছেন অনেক তারকা। প্রায়শই ভাইরাল হচ্ছে টিকটক ভিডিও। আবার হারিয়েও যাচ্ছেন নিমিষেই। এবার এমনই এক টিকটক তারকাকে নিয়ে মেতেছে বলিউড। বলিউড হার্ডথ্রব হৃত্বিক রওশন থেকে শুরু করে বিগ বি অমিতাভ বচ্চন সবাই মুগ্ধ এই তরুণের মাইকেল জ্যাকশন স্টাইল নাচে।

ভারতের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ট্রেন্ডিংয়ে চলা তরুণের নাম যুবরাজ সিং। রাজস্থান জোধপুরের ‘সান সিটি বা সূর্যনগরী’ এলাকার খুব সাধারণ ঘরের এই তরুণের বয়স ১৮ বছর। এক ভাই দুই বোনের মধ্যে যুবরাজ সবার বড়। 

সম্প্রতি যুবরাজের টিকটকের কয়েকটি ভিডিও একসঙ্গে যুক্ত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে শেয়ার করেছিলেন এক যুবক। মুহূর্তের মধ্যেই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। নজর এড়ায়নি হৃত্বিক রওশনের, যিনি নিজেও মাইকেল জ্যাকশনের দারুণ ভক্ত। ব্যস, এরপর একে সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন রাভিনা ট্যান্ডন, অনুপম খের, সুনিল শেঠী থেকে অমিতাভ পর্যন্ত। ভারতের জনপ্রিয় কোরিওগ্রাফার ও নির্মাতা র‌্যামো ডি সুজাতো পোস্টে লিখেও দিয়েছেন, ‘ভাই, পরের ছবি তোমাকে নিয়ে।’ ভিডিওটি এরই মধ্যে ১৫ লাখেরও বেশি বার দেখাও হয়েছে টুইটার থেকে।

ভাইরাল হওয়ার পর এই তরুণের সাক্ষাৎকার নিয়ে নিউজ২৪ চ্যানেল। সেখানে যুবরাজ জানিয়েছেন, তিনি আগে মাইকেল জ্যাকশন নাচের কথা জানতেনও না। ২০১৭ সালে বলিউডের আরেক এমজে (মাইকেল জ্যাকশন) ভক্ত টাইগার শ্রফের সিনেমা মাইকেল মুন্না-তে এ ধরনের নাচ দেখেই অনুপ্রাণিত হন। এরপর দীর্ঘ ৭ মাস ধ্যান করেছেন নাচটি রপ্ত করার জন্য। এখন মাইকেল জ্যাকশনের গানের পাশাপাশি বলিউডের বিভিন্ন গানের সঙ্গে এ ধরনের নাচের চর্চা করছেন তিনি। আর যেটা মানুষের কাছে ভালো লাগছে। এই তরুণের টিকটক চ্যানেল ঘুরে দেখা গেলে সবশেষ বেশ কয়েকটি ভিডিও এক মিলিয়নের বেশি ভিউ হয়েছে।

সাক্ষাৎকারে যুবরাজ জানান, খুব সাধারণ তার পরিবারে একটি মাত্র স্মার্ট ফোন ছিল। যা তার বাবা, মা ও তিন ভাইবোনের বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম। দিনের খুব অল্প সময়ই সে এই ফোনটি কাছে পেতো। যখনই পেয়েছে সঙ্গে সঙ্গে ইউটিউব থেকে মাইকেল জ্যাকশনের গানের ভিডিও দেখেন তিনি।

এই ধরনের নাচ রপ্ত করার জন্য কারো কাছে শিক্ষাও নেননি তিনি। নিজে নিজে ভিডিও দেখেই রপ্ত করেছেন তিনি। তবে প্রথম দিকে তার ইউটিউব বা অন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সম্পর্কে তেমন ধারণা ছিল না তার। বন্ধু এবং ছোটবোনদের সহায়তা নিয়েই তিনি টিকটক ও ইনস্টাগ্রামে একাউন্ট খোলেন তিনি। 

হঠাৎ করে তারকা বনে যাওয়া এই তরুণ অবশ্য এখনই বড় কোন পরিকল্পনার কথা জানাচ্ছেন না। ধীরে ধীরে নিজের যোগ্যতায় বলিউডে জায়গা করে নিতে চান তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন