শনিবার| জানুয়ারি ১৮, ২০২০| ৫মাঘ১৪২৬

দেশের খবর

ফরিদপুরে একদিনে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার

বণিক বার্তা প্রতিনিধি ফরিদপুর

ফরিদপুর সদর নগরকান্দা উপজেলা থেকে গতকাল দুই নারীসহ তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ফরিদপুর শহরের চরকমলাপুর এলাকার ভাড়া বাসা থেকে গতকাল সকালে রিনা বেগম (২২) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর ওই গৃহবধূর স্বামী পলাতক রয়েছেন।

রিনা বেগম ফরিদপুরের সালথা উপজেলার কুমারপট্টি গ্রামের মো. শাহজাহানের মেয়ে। নয় বছর আগে একই উপজেলার রামকান্তপুর গ্রামের মো. হাসানের সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

নিহতের ভাই মো. রাজীব জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া চলছিল রিনার। গত সোমবার রাতে দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে বিষয়টি সমাধান করা হয়। রাতে দুজনই খাবার খেয়ে ঘুমাতে যান। সকালে খোঁজ নেয়ার জন্য মা জোলেখা বেগম রিনার ঘরে গেলে ঘরের ভেতর রিনাকে পড়ে থাকতে দেখে চিত্কার দেন। পরে আশপাশের লোকজন এসে রিনাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক মো. বেলাল হোসেন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই নিহতের স্বামী হাসান পলাতক রয়েছেন।

এদিকে ফরিদপুর শহরের আলীপুর গোরস্তানসংলগ্ন এলাকায় দুর্বৃত্তদের হাতুড়ি পেটায় আহত যুবক মো. রাব্বির (২২) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুুলিশ। গত শুক্রবার তাকে ধরে নিয়ে হাতুড়ি পেটা করে গুরুতর আহত করে দুর্বৃত্তরা। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ওইদিন সন্ধ্যায় ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সকালে তার অবস্থার অবনতি হলে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

নিহত রাব্বির মামা বিল্লাল হোসেন বলেন, রাব্বি ফরিদপুর নিউ মার্কেটে কাপড়ের ব্যবসা করত।  গত শুক্রবার বেলা ২টার পর বাসা থেকে বের হয় সে। শুনেছি এলাকার কয়েকজন যুবক তাকে ডেকে নিয়ে গেছে। এরপর রক্তাক্ত অবস্থায় আমরা অম্বিকাপুর খাদ্যগুদামের পেছনের মাঠ থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি। এর আগে তাকে আলীপুরের বাহাদুর কিন্ডারগার্টেন স্কুলের ভেতরে নিয়ে হাতুড়ি পেটা করা হয়।

ফরিদপুরের নগরকান্দায় রুপা আক্তার (১৫) নামে এক কিশোরীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে উপজেলার লস্করদিয়া গ্রামে বাড়ির পাশের বাগানের একটি পরিত্যক্ত ঘর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

রুপা আক্তার লস্করদিয়া গ্রামের আলী মিয়ার মেয়ে এবং স্থানীয় স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।

রুপার বড় বোন সাবিনা জানান, গতকাল সকাল ১০টার পর থেকেই তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। অনেক খোঁজাখুঁজির পর বাড়ির পাশে বাগানের ভেতর পরিত্যক্ত একটি ঘরে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নগরকান্দা থানার উপপরিদর্শক রবিউল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা, তা তদন্ত করা হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন