বৃহস্পতিবার | অক্টোবর ০১, ২০২০ | ১৫ আশ্বিন ১৪২৭

শেয়ারবাজার

ম্যারিকোর তৃতীয় প্রান্তিকের পর্ষদ সভা ২৮ জানুয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদক

ম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা ২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। সভায় অন্যান্য বিষয়ের পাশাপাশি কোম্পানিটির চলতি হিসাব বছরের তৃতীয় প্রান্তিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর) নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।

চলতি হিসাব বছরের জন্য দুবার অন্তর্বর্তী লভ্যাংশ প্রদান করেছে ম্যারিকো বাংলাদেশ। এর মধ্যে চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধের (এপ্রিল-সেপ্টেম্বর) আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ২০০ শতাংশ অন্তর্বর্তী নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। এর আগে প্রথম প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের ২৫০ শতাংশ অন্তর্বর্তী নগদ লভ্যাংশ দেয় তারা।

সর্বশেষ নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি হিসাব বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) ম্যারিকো বাংলাদেশের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২১ টাকা ২৪ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ১৫ টাকা ৩০ পয়সা। প্রথমার্ধে (এপ্রিল-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৪৮ টাকা ২০ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩২ টাকা ৯২ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৫৮ টাকা ৪৯ পয়সা।

৩১ মার্চ সমাপ্ত ২০১৯ হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের মোট ৬৫০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। এর মধ্যে ৬০০ শতাংশ অন্তর্বর্তী নগদ লভ্যাংশ আকারে বিতরণ করা হয়। বাকি ৫০ শতাংশ দেয়া হয় চূড়ান্ত নগদ লভ্যাংশ আকারে। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয় ৬৪ টাকা ২৩ পয়সা, আগের হিসাব বছর যা ছিল ৫২ টাকা ১৫ পয়সা। ৩১ মার্চ এনএভিপিএস দাঁড়ায় ৪১ টাকা ৩৪ পয়সা, এক বছর আগে যা ছিল ৪৭ টাকা ৩৮ পয়সা।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল ম্যারিকো বাংলাদেশ শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল হাজার ৫৮৬ টাকা। সমাপনী দর ছিল হাজার ৫৭১ টাকা ২০ পয়সা। এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে হাজার ১৯৮ টাকা ১০ পয়সা হাজার ৮৯৯ টাকা ৫০ পয়সা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন