রবিবার | জুলাই ১২, ২০২০ | ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

দেশের খবর

অভয়নগরে গরুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে তিন যুবক নিহত

বণিক বার্তা প্রতিনিধি যশোর

যশোরের অভয়নগরে গরুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে তিন যুবক নিহত হয়েছেন। গতকাল ভোরে উপজেলার প্রেমবাগ ইউনিয়নের প্রেমবাগ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে দুজনের পরিচয় নিশ্চিত করেছে পুলিশ। তারা হলেন খুলনার খানজাহান আলী থানার রেলগেট এলাকার সোহেল (২৭) ও সৈকত (৩০)।

এছাড়া গণপিটুনিতে আহত চোরচক্রের আরেক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার জনি শেখ বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট কাটাখালী গ্রামের ওহাব শেখের ছেলে।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম জানান, আটক জনি গরু চুরির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করায় তাকে এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। তার বিরুদ্ধে গোপালগঞ্জ জেলায় একটি ডাকাতি ও চুরি মামলা রয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম জানান, গত রোববার পিকআপ ভ্যান নিয়ে গাইদগাছি গ্রামে গরু চুরি করতে যান নিহতরা। চোররা ওই গ্রামের খোরশেদ আলীর বাড়ি থেকে তিনটি গরু নিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে বাড়ির লোকজন চিত্কার করেন। চিত্কার শুনে গ্রামবাসী তাদের ধাওয়া করে। একপর্যায়ে মসজিদের মাইকেও গরু চুরির বিষয়টি জানানো হয়। গ্রামবাসী জড়ো হয়ে ধাওয়া দিয়ে প্রেমবাগ গ্রামের মজুমদার পাড়ার রেলক্রসিং এলাকায় চার গরুচোরকে ধরে ফেলেন। এ সময় গ্রামবাসীর পিটুনিতে ঘটনাস্থলেই দুই জনের মৃত্যু হয়। আরেকজনকে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া একজনকে আহত অবস্থায় আটক করা হয়েছে। যশোরের পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন জানিয়েছেন, গণপিটুনিতে নিহতের ঘটনায় অভয়নগর থানা এবং গরু চুরির ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গণপিটুনি মামলায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, এ চক্র দিনে ফেরিওয়ালা সেজে চুরি-ডাকাতির স্থান চিহ্নিত করে বেড়াত। পরিকল্পনা অনুযায়ী রাতে এসব স্থানে হানা দিত তারা। চুরির সঙ্গে আরো কয়েকজন জড়িত ছিল। তাদের শনাক্ত করতে জনিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ চক্রের সদস্যদের বাড়ি খুলনা ও বাগেরহাট জেলার বিভিন্ন এলাকায়।

প্রেমবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মফিজ উদ্দিন জানান, গত কয়েক মাসে এ অঞ্চলে একাধিক গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে এলাকার মানুষ অতিমাত্রায় ক্ষুব্ধ ছিল।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন