শুক্রবার | জুলাই ০৩, ২০২০ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

শেষ পাতা

ইঞ্জিন দেখতে যুক্তরাষ্ট্র গেলেন রেলমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

যুক্তরাষ্ট্রের রেলওয়ে রোলিংস্টক নির্মাতা প্রগ্রেস রেল লোকোমোটিভ ইনকরপোরেশনের কাছ থেকে ৪০টি ইঞ্জিন (লোকোমোটিভ) কিনছে রেলওয়ে। ইঞ্জিনগুলোর সর্বশেষ অগ্রগতি ও কারখানা পরিদর্শনের উদ্দেশ্যে কোম্পানির আমন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রের পথে রওনা দিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। গতকাল সন্ধ্যায় মন্ত্রীসহ চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে ঢাকা ত্যাগ করে।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা শরিফুল আলম জানান, রেলপথমন্ত্রী ও প্রতিনিধি দল লোকোমোটিভ তৈরির কারখানাসহ ক্রয় প্রক্রিয়ায় থাকা ইঞ্জিনগুলোর সর্বশেষ অগ্রগতি ও সার্বিক কার্যক্রম পরিদর্শন করবেন। ২১ জানুয়ারি তাদের দেশে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে।

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে প্রতিটি ইঞ্জিনের দাম পড়ছে ২৮ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। এ হিসাবে ৪০টি ইঞ্জিনের দাম ১ হাজার ১২৩ কোটি টাকা বা ১৩৫ দশমিক ৩৪ মিলিয়ন ডলার। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে বাংলাদেশে ইঞ্জিনগুলো সরবরাহ করতে শুরু করবে প্রগ্রেস রেল লোকোমোটিভ ইনকরপোরেশন।

৩ হাজার ২৫০ বিএইচপি হর্সপাওয়ারের এসব ইঞ্জিন ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার গতিতে চলতে সক্ষম। প্রতিটি ইঞ্জিনের এক্সেল লোড ১৮ দশমিক ৮ টন। মাইক্রোপ্রসেসর কন্ট্রোল সিস্টেমের এসব ইঞ্জিন এসি-এসি পাওয়ার ট্রান্সমিশনে চলবে।

গত বছরের ১৪ জানুয়ারি ইঞ্জিনগুলো কেনার জন্য প্রগ্রেস রেলের সঙ্গে চুক্তি করে বাংলাদেশ রেলওয়ে। চুক্তি অনুযায়ী, ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যে সব ইঞ্জিন বাংলাদেশে সরবরাহ করবে কোম্পানিটি।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ রেলওয়ের বহরে বর্তমানে ব্রডগেজ ইঞ্জিনের সংখ্যা ৯৪। এর মধ্যে ৫৫টিরই অর্থনৈতিক আয়ুষ্কাল ফুরিয়েছে। ইঞ্জিন সংকটে রেলওয়ের পরিচালন কার্যক্রম মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির কর্মকর্তারা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন