শুক্রবার | মে ২৯, ২০২০ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

শেষ পাতা

বিজিবি সদস্যদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী

চেইন অব কমান্ড মেনে চলুন

বণিক বার্তা ডেস্ক

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সুনাম অক্ষুণ্ন রাখার জন্য বাহিনীর সদস্যদের শৃঙ্খলা বজায় রাখা চেইন অব কমান্ড মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজধানীর পিলখানায় বিজিবি সদর দপ্তরে গতকাল বিজিবি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আনুষ্ঠানিক কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, আমি আশা করি, আপনারা সবসময় দেশপ্রেম, সততা দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে বাহিনীর সুনাম মর্যাদা সমুন্নত রাখবেন। খবর বাসস।

শৃঙ্খলা চেইন অব কমান্ডকে একটি বাহিনীর অন্যতম চালিকাশক্তি আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার আবেদন থাকবে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কমান্ড মেনে চলবেন এবং শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখবেন। আর আপনাদের কোনো সমস্যা হলে সেটা দেখার জন্য আমরা তো আছিই। কাজেই আপনারা দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন, যেন দেশ আজকে অর্থনৈতিকভাবে যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, সে অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকে।

তিনি বলেন, জাতির পিতার হাতে গড়া প্রতিষ্ঠান। অনেক ঘাত-প্রতিঘাত পার হতে হয়েছে। আগামী দিনে সীমান্তরক্ষী বাহিনী সারা বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মর্যাদা অর্জন করবে, সে বিশ্বাস আমার আছে।

এর আগে বিজিবি সদস্যরা মনোজ্ঞ কুচকাওয়াজের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সালাম জানান। কুচকাওয়াজ পরিদর্শন অভিবাদন গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী। একটি সুসজ্জিত খোলা জিপে করে প্যারেড পরিদর্শনকালে বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাফিনুল ইসলাম প্যারেড কমান্ডার কর্নেল এএমএম খায়রুল কবির সময় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

এছাড়া মোটর শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয় এবং বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজ বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজের প্রায় ৬০০ শিক্ষার্থী স্বাধীনতা উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ শীর্ষক ডিসপ্লে প্রদর্শন করে। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বিজিবি দিবস উপলক্ষে বীরত্বপূর্ণ কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বিজিবির কর্মকর্তাদের মাঝে বর্ডার গার্ড পদক-২০১৯, রাষ্ট্রপতি বর্ডার গার্ড পদক-২০১৯, বর্ডার গার্ড পদক সেবা-২০১৯ রাষ্ট্রপতি বর্ডার গার্ড পদক সেবা-২০১৯ বিতরণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা শেখ মুজিব দেশের গরিব-দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য, ৭৫-এর ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। তার পরই থেমে যায় আমাদের অগ্রযাত্রা। আবার ২১ বছর পর ৯৬

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন