মঙ্গলবার | ডিসেম্বর ১০, ২০১৯ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

শিল্প বাণিজ্য

শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল

প্রায় ৩ কোটি টাকা দিয়েছে রবি কোটস লাফার্জ-হোলসিম

নিজস্ব প্রতিবেদক

এক বছরের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ হিসেবে বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে ২ কোটি ৮৪ লাখ ৭৬ হাজার টাকা জমা দিয়েছে মোবাইল কোম্পানি রবি আজিয়াটা লিমিটেড, সুইং থ্রেড কোম্পানি কোটস ও সিমেন্ট উৎপাদনকারী কোম্পানি লাফার্জ-হোলসিম। বাংলাদেশ সচিবালয়ে গতকাল শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের হাতে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে লভ্যাংশের এ চেক হস্তান্তর করেন কোম্পানি তিনটির প্রতিনিধিরা।

চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব কেএম আলী আজম, বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. রেজাউল হক, কেন্দ্রীয় তহবিলের মহাপরিচালক ড. আনিসুল আওয়াল, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায়, রবির পলিসি অ্যান্ড স্টেকহোল্ডার রিলেশনসের ভাইস প্রেসিডেন্ট দেওয়ান নাজমুল হাসান, কোটস বাংলাদেশ লিমিটেডের এইচআর ম্যানেজার রাজিবুল রহিম, সিবিএ প্রেসিডেন্ট মো. আব্দুল মান্নান ও লাফার্জ-হোলসিমের সিসিএও মোহাম্মদ আসিফ ভূঁইয়া উপস্থিত ছিলেন।

রবি আজিয়াটা লিমিটেডের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা মো. ফয়সাল ইমতিয়াজ খান তাদের গত এক বছরের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ ১ কোটি ৩৩ লাখ ৯৮ হাজার ৩১০ টাকার চেক প্রদান করেন। এছাড়া সুইং থ্রেড কোম্পানি কোটসের মানবসম্পদ পরিচালক ৮৩ লাখ ৩৯ হাজার ৫২৮ টাকার ও লাফার্জ-হোলসিমের মানবসম্পদ পরিচালক কাজী মিজানুর রহমান ৬৭ লাখ ৩৯ হাজার ৪৩ টাকার চেক হস্তান্তর করেন।

বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী, কোম্পানির নিট লাভের ৫ শতাংশের এক-দশমাংশ বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে জমা দেয়ার বিধান রয়েছে। এ পর্যন্ত দেশী-বিদেশী ও বহুজাতিকসহ মোট ১৪৬টি কোম্পানি এ তহবিলে অর্থ জমা দিয়েছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত তহবিলে মোট জমা পড়েছে প্রায় ৩৮৩ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। অন্যদিকে এ তহবিল থেকে প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের প্রায় সাড়ে ১০ হাজার শ্রমিককে প্রায় ৩২ কোটি টাকার সহায়তা দেয়া হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন