শুক্রবার| জানুয়ারি ২৪, ২০২০| ১১মাঘ১৪২৬

পণ্যবাজার

চীনে বেড়েছে সয়াবিন উৎপাদন কমেছে আমদানি

বণিক বার্তা ডেস্ক

চীনে এবার রেকর্ড খাদ্যশস্য উৎপাদন হতে পারে বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা পূর্বাভাস করেছে। ধারাবাহিকতায় দেশটিতে এবার সয়াবিনের উৎপাদন আগের বছরের তুলনায় ১৩ শতাংশ বেড়েছে। এদিকে বছরের প্রথম ১০ মাসে দেশটিতে খাদ্যপণ্যটির আমদানি কমেছে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় শতাংশ। দেশটির সরকারি সূত্র সম্প্রতি তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্স ব্লুমবার্গ।

চীনের ন্যাশনাল ব্যুরো অব স্ট্যাটিস্টিকসের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে এবার সব মিলিয়ে কোটি ৮১ লাখ টন সয়াবিন উৎপাদিত হয়েছে। মূলত চীন সরকার খাদ্যপণ্যটির উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে কৃষকদের উদার ভর্তুকি প্রদানের পর দেশটিতে তেলবীজটির আবাদি জমির পরিমাণ ১১ শতাংশ বেড়েছে। ফলে উৎপাদনেও চাঙ্গা ভাব বজায় রয়েছে।

চীন সাধারণত অভ্যন্তরীণভাবে উৎপাদিত সয়াবিন খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করে। আমদানীকৃত সয়াবিন ব্যবহার করে পশুখাদ্য হিসেবে। কিন্তু আমদানি কমায় এবার পশুখাদ্য হিসেবেও কৃষিপণ্যটির

ব্যবহার করছে দেশটি।

চলতি বছরের প্রথম ১০ (জানুয়ারি-অক্টোবর) মাসে চীন আন্তর্জাতিক বাজার থেকে কোটি লাখ ৯০ হাজার টন সয়াবিন আমদানি করেছে, যা আগের বছরের তুলনায় শতাংশ কম। সময় দেশটির বাজারে তেলবীজটির শীর্ষ সরবরাহকারী হয়েছে ব্রাজিল। অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্র থেকে চীনের সয়াবিন আমদানি কমে তিন মাসের সর্বনিম্নে ঠেকেছে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে অক্টোবরে দেশটি মোট সাড়ে ১১ লাখ টন সয়াবিন আমদানি করেছে, যা আগের মাসের তুলনায় লাখ ৮০ হাজার টন কম। তবে আগের বছরের একই মাসের তুলনায় বেশি। ওই সময় যুক্তরাষ্ট্র থেকে চীনের আমদানিকারকরা এক লাখ টনেরও কম সয়াবিন আমদানি করেছিলেন।

এদিকে ব্রাজিল থেকে অক্টোবরে চীন আমদানি কমেছে মোট ৩৮ লাখ টন সয়াবিন। সময় চীনের বাজারে শীর্ষ সরবরাহকারী হলেও ব্রাজিল থেকে পণ্যটির আমদানি কমেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন