শুক্রবার | আগস্ট ১৪, ২০২০ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

ভারতে অনলাইনে ওষুধ বিক্রি বন্ধে আদালতের নির্দেশ

বণিক বার্তা ডেস্ক

ভারতের সব রাজ্যকে অনলাইনে ওষুধ বিক্রি নিষিদ্ধে আদালতের একটি নির্দেশ কার্যকর করতে বলেছে দেশটির ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। গতকাল এক জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন। নিয়ন্ত্রক সংস্থার এ পদক্ষেপের ফলে বেশকিছু অনলাইন ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা বেড়েছে সংশ্লিষ্ট শিল্পের। খবর রয়টার্স।

ভারত এখনো অনলাইন ওষুধ বিক্রি বা -ফার্মেসিসংক্রান্ত নিয়ন্ত্রণ চূড়ান্ত করতে পারেনি। কিন্তু মেডলাইফ, নেটমেডস, তেমাসেকের মদদপুষ্ট ফার্মাইজি ও সিকোইয়া ক্যাপিটালের ওয়ানএমজির মতো বেশকিছু অনলাইন বিক্রেতার প্রবৃদ্ধির কারণে এরই মধ্যে প্রচলিত দোকানে ওষুধ বিক্রির ব্যবসা হুমকির মুখে পড়েছে।

অনলাইনে অনিয়ন্ত্রিত বিক্রির ফলে ওষুধের অপব্যবহার বাড়তে পারে, এমন অভিযোগ তুলে একটি পিটিশন দায়ের করেন ভারতের চিকিৎসকরা। পিটিশন শুনানির পর গত ডিসেম্বরে দিল্লি হাইকোর্ট সাময়িকভাবে অনলাইন বিক্রি বন্ধ করার বিষয়টি নিশ্চিত করতে সরকারকে নির্দেশ দেন।

সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশনের (সিডিএসসিও) জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা কে বাঙ্গারুরাজন বলেন, কেন্দ্রীয় সংস্থা চলতি বছরের শুরুতে রাজ্যগুলোকে আদালতের নির্দেশ মেনে চলতে বলে। একই সঙ্গে সব কর্তৃপক্ষের কাছে একটি অনুস্মারক জারি করা হয়। বাঙ্গারুরাজন রয়টার্সকে জানান, রাজ্যের ড্রাগ কন্ট্রোলাররাই নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ, তাদেরই এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে হবে। একই সঙ্গে যদি কেউ এ কাজ করে (অনলাইনে ওষুধ বিক্রি), তবে ড্রাগ কন্ট্রোলারদের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

রয়টার্সের হাতে আসা এক নথি অনুসারে, ২৮ নভেম্বর ভারতের সব রাজ্যে সিডিএসসিওর নির্দেশনামা প্রেরণ করা হয়েছে। তবে রাজ্যগুলো পরবর্তী সময়ে কী পদক্ষেপ নেবে, তা তাত্ক্ষণিকভাবে স্পষ্ট নয়।

একটি আইনি প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ সহকারী শ্রীনিধি শ্রীনিবাসন বলেন, দিল্লি আদালতের এ নির্দেশ শিল্পে উদ্বেগ বাড়িয়েছে। রাজ্য ওষুধ নিয়ন্ত্রকদের যেকোনো নিষেধাজ্ঞা অনলাইন বিক্রেতাদের ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন