বুধবার | আগস্ট ০৫, ২০২০ | ২১ শ্রাবণ ১৪২৭

প্রথম পাতা

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি

বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থে ট্রাস্টি সদস্যদের গাড়িবিলাস

সাইফ সুজন

শিক্ষার গুণগত মানে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান প্রথম সারিতে। গবেষণার জন্য রয়েছে বিশ্বমানের ল্যাব সুবিধা। চাকরির বাজারেও ভালো করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্র্যাজুয়েটরা। তবে অনিয়মের নানা অভিযোগ রয়েছে ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যদের বিরুদ্ধে। আর্থিক অনিয়ম স্বেচ্ছাচারিতার পর এবার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থে গাড়িবিলাসের। শিক্ষার্থীদের বেতন-ফির টাকায় বিলাসবহুল সাতটি গাড়ি কিনে ব্যবহার করছেন ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যরা। ল্যান্ড রোভারের রেঞ্জ রোভার ২০১৯ মডেলের একেকটি গাড়ি ক্রয়ে খরচ হয়েছে প্রায় কোটি টাকা।

যদিও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় যে ট্রাস্টের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত তার ডিডে বলা হয়েছে, ট্রাস্ট মানবহিতৈষী, দানশীল, জনহিতকর, অরাজনৈতিক, অলাভজনক অবাণিজ্যিকভাবে পরিচালিত হবে। তাই ট্রাস্টের অধীনে পরিচালিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ট্রাস্টিদের গাড়িসহ অন্য কোনো আর্থিক সুবিধা গ্রহণের সুযোগ নেই বলে জানান আইনজীবীরা।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরশেদ বলেন, ট্রাস্ট অ্যাক্ট অনুযায়ী ট্রাস্টি সদস্যরা ট্রাস্ট থেকে কোনো অর্থ নিতে পারবেন না। তারা ট্রাস্টে অর্থ জোগান দেবেন। কিন্তু দেশের ব্যবসায়ীরা ট্রাস্ট খুলে নামে-বেনামে সিটিং অ্যালাউন্সসহ গাড়ি সুবিধা নিচ্ছেন। তদারক সংস্থাগুলোর নিষ্ক্রিয়তার সুযোগ কাজে লাগিয়ে ট্রাস্ট কিংবা বিশ্ববিদ্যালয় খুলে এগুলোকে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের মতো পরিচালনা করছেন তারা।

জানা যায়, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় বিলাসবহুল সাতটি গাড়ি কেনে গত জুনে। কেনার প্রক্রিয়ায় আছে আরো একটি গাড়ি। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেনা সবগুলো গাড়িই ল্যান্ড রোভারের রেঞ্জ রোভার ২০১৯ মডেলের। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) থেকে প্রাপ্ত তথ্যমতে, গাড়িগুলোর রেজিস্ট্রেশন নম্বর হলো ঢাকা মেট্রো--১৮-৩৮৩৬, ঢাকা মেট্রো--১৮-৩৮৪০, ঢাকা মেট্রো--১৮-৩৭৬২, ঢাকা মেট্রো--১৮-৩৭৬৩, ঢাকা মেট্রো--১৮-৩৫৭৮, ঢাকা মেট্রো--১৮-৩৪৪৬ ঢাকা মেট্রো--১৮-৩৪৪৫।

এর মধ্যে পাঁচটি গাড়ি ক্রয়ের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া গেছে। কাকরাইলের কার হাউজ থেকে কেনা হয়েছে দুটি গাড়ি। রেজিস্ট্রেশনসহ প্রতিটি গাড়ির মূল্য রাখা হয়েছে কোটি ৯৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা। কন্টিনেন্টাল মটরস, স্টার্কউড অটোস অটো ইমপোর্টস লিমিটেডের কাছ থেকে কেনা হয়েছে একই মডেলের একটি করে গাড়ি। এক্ষেত্রে প্রতিটি গাড়ির রেজিস্ট্রেশনসহ মূল্য রাখা হয়েছে কোটি ৮১ লাখ ১০ হাজার টাকা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন