শনিবার | ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

খবর

খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি

চালের দাম নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত বাজার তদারকির সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কৃষকদের ধানের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করার পাশাপাশি চালের দাম যাতে না বাড়ে, সেদিকে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি। চালের দাম নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত বাজার তদারকি করার সুপারিশ করেছে কমিটি। গতকাল সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদীয় কমিটির সভায় সুপারিশ করা হয়।

মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, নুরুল ইসলাম নাহিদ, ধীরেন্দ্র দেবনাথ, আব্দুল হাই, আয়েন উদ্দিন আঞ্জুম সুলতানা বৈঠকে অংশ নেন।

সূত্র জানায়, বৈঠকে খাদ্য মন্ত্রণালয় জানায়, চলতি আমন মৌসুমে কৃষকদের কাছ থেকে ছয় লাখ টন ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতি কেজি ধানের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২৬ টাকা। উপজেলা পর্যায়ে প্রান্তিক নারী কৃষকদের অগ্রাধিকার দিয়ে ধান বিক্রয়কারী কৃষক তালিকা করা হয়েছে। সে তালিকা অনুযায়ী ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে। গত ২০ নভেম্বর থেকে ধান সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত মোট ২৪৫ টন ধান সংগ্রহ করা হয়েছে। ধান বিক্রির টাকা সঙ্গে সঙ্গে কৃষকদের ব্যাংক হিসাবে পরিশোধ করা হচ্ছে। ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত ধান সংগ্রহ করা হবে। এছাড়া কৃষকরা যাতে মিল মালিকদের কাছে ধান বিক্রি করে ন্যায্য মূল্য পান, সেজন্য ৩৬ টাকা কেজি দরে সাড়ে তিন লাখ টন সিদ্ধ চাল এবং ৩৫ টাকা দরে ৫০ হাজার টন আতপ চাল সংগ্রহেরও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়া দুর্নীতি প্রতিরোধে ১৬টি উপজেলায় পরীক্ষামূলকভাবে মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে ধান কেনা হবে।

বৈঠক শেষে সংসদীয় কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ নাসিম সাংবাদিকদের বলেন,

কমিটি বলেছে কৃষকদের ধানের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করতে হবে, আবার চালের দাম যাতে না বাড়ে, সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। নিয়মিত বাজার পর্যবেক্ষণ করতে হবে। তবে মুক্তবাজার অর্থনীতির যুগে ব্যবসায়ীদের কোনো চাপ প্রয়োগ করা হোক তা তারা চান না। এছাড়া ভেজালবিরোধী অভিযান জোরদার করতে বলা হয়েছে।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, উপজেলায় উন্মুক্তভাবে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে লটারির মাধ্যমে ধান কেনা হবে। ২০ নভেম্বর কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। এছাড়া পরীক্ষামূলকভাবে ১৬টি উপজেলায় অ্যাপসের মাধ্যমে ধান কেনা হবে। তিনি বলেন, খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে ইউএসএআইডির সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ ল্যাবরেটরি উদ্বোধন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব জেলায় ধরনের গাড়ি দেয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন