মঙ্গলবার | জুলাই ১৪, ২০২০ | ৩০ আষাঢ় ১৪২৭

দেশের খবর

যশোরে অবৈধ বাস- ট্রাক প্রায় ৫০০০, লাইসেন্স নেই ৪০০০ চালকের

বণিক বার্তা প্রতিনিধি যশোর

 ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকা সত্ত্বেও যশোরে ভারী মাঝারি ধরনের যানবাহন চালাচ্ছেন চার হাজারেরও বেশি চালক একই সঙ্গে জেলায় অবৈধভাবে চলছে ফিটনেসবিহীন প্রায় পাঁচ হাজার বাস ট্রাক ফলে যশোরে সড়ক দুর্ঘটনা পরিণত হয়েছে প্রায় নিত্যদিনের ঘটনায় গত প্রায় চার বছরে যশোরের চারটি জাতীয় আঞ্চলিক মহাসড়কে অন্তত ৫৪টি দুর্ঘটনায় ৫৭ জন প্রাণ হারিয়েছে আর এতে গুরুতর আহতের সংখ্যা অগণিত

বাংলাদেশ সড়ক ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) যশোর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, জেলায় বিভিন্ন সড়কে নিবন্ধিত ভারী মাঝারি (বাস-মিনিবাস, ট্রাক-ট্রাক্টর-ট্যাংকলরি) ধরনের যানবাহন চলাচল করে ১৩ হাজার ১৩১টি এর মধ্যে রুট পারমিট বা চলাচলের বৈধতা রয়েছে হাজার ৩০৭টির অন্যদিকে রুট পারমিট নেই হাজার ৮২৪টি গাড়ির রুট পারমিটবিহীন এসব গাড়ি সড়ক-মহাসড়কে নামানো হয়েছে জোড়াতালি দিয়ে এদিকে জেলায় ১৩ হাজার ১৩১ জন পেশাদার চালকের মধ্যে হাজার ৮২৩ জনের ড্রাইভিং লাইসেন্স রয়েছে লাইসেন্স ছাড়াই গাড়ি চালাচ্ছেন হাজার ৩০৮ জন

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন লাইসেন্সবিহীন অদক্ষ চালকের কারণে জেলায় লাগামহীনভাবে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে যশোর হাইওয়ে পুলিশের চারটি থানা ফাঁড়ি সূত্রে জানা গেছে, গত তিন বছরে যশোর-খুলনা, যশোর-বেনাপোল, যশোর-ঝিনাইদহ যশোর-নড়াইল আঞ্চলিক জাতীয় মহাসড়কে ৫৪টি দুর্ঘটনা ঘটে এর মধ্যে যশোর-বেনাপোল জাতীয় মহাসড়কে ২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ৩৬টি দুর্ঘটনায় ৩৫ জন মারা যায় যশোর-খুলনা জাতীয় মহাসড়কে ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৯ সালের অক্টোবর পর্যন্ত ১৪টি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায় ১৮ জন যশোর-ঝিনাইদহ জাতীয় মহাসড়কের পালবাড়ী মোড় থেকে সাতমাইল হৈবতপুর পর্যন্ত ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত তিনটি দুর্ঘটনায় তিনজন মারা গেছেন এছাড়া যশোর-নড়াইল আঞ্চলিক মহাসড়কে একটি দুর্ঘটনায় একজন মারা যায়

বারোবাজার হাইওয়ে থানার পুলিশ পরিদর্শক শেখ মাহফুজার রহমান বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার জন্য গাড়িচালকের দায় রয়েছে বেপরোয়া গতি দীর্ঘ সময় ধরে গাড়ি চালানোর কারণে তাদের মনোযোগ নষ্ট হয় এতে দুর্ঘটনা বেশি ঘটে তাছাড়া ত্রুটিপূর্ণ যানবহনও দুর্ঘটনার প্রধান একটি কারণ

সম্প্রতি যশোর নড়াইল বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, যশোর-নড়াইল যশোর-কেশবপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে চলাচল করা বেশির ভাগ বাসের ফিটনেস নেই

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন