রবিবার | ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পণ্যবাজার

এশিয়ার বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়াল সৌদি আরব

বণিক বার্তা ডেস্ক

মধ্যপ্রাচ্যের বাজারে সৌদি আরবের অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম গত নভেম্বরে ছয় বছরের সর্বোচ্চে পৌঁছে। ধারাবাহিকতায় আগামী জানুয়ারি থেকে এশিয়ার বাজারেও লাইট ক্রুডের দাম বাড়াল সৌদি আরব, যা ছয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। খবর রয়টার্স।

মূলত দুবাই বেঞ্চমার্কে সরবরাহ কমে আসা এবং চাহিদা বাড়ায় নভেম্বরে সৌদি জ্বালানি তেলের দাম বাড়ে। সেজন্য দুবাই বেঞ্চমার্কের সঙ্গে সমন্বয় করে আগামী জানুয়ারি থেকে এশিয়ার ভোক্তাদের জন্য প্রতি ব্যারেল লাইট ক্রুডের অফিশিয়াল সেলিং প্রাইস (ওএসপি) ৩০ সেন্ট বাড়িয়েছে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান আরামকো। যেখানে ডিসেম্বরে দুবাই বেঞ্চমার্কে সৌদি আরবের ব্যারেলপ্রতি প্রিমিয়াম আসছে ডলার ৭০ সেন্টের মতো, যা ২০১৪ সালের জানুয়ারির পর সর্বোচ্চ।

লাইট ক্রুডের পাশাপাশি এশিয়ার বাজারে এক্সট্রা লাইট ক্রুডেরও ওএসপি বাড়িয়েছে সৌদি আরব। প্রতি ব্যারেল ৭০ সেন্ট দাম বাড়িয়ে আরামকোর প্রিমিয়াম নির্ধারণ করা হয়েছে ডলার ৮০ সেন্ট। যেটিও ছয় বছরের সর্বোচ্চ প্রিমিয়াম। এছাড়া ন্যাফতা পেট্রোকেমিক্যালেরও দাম দুই বছরের সর্বোচ্চ বাড়ানো হয়েছে।

তবে লাইট ক্রুড এক্সট্রা লাইট ক্রুডের দাম বাড়লেও আরব মিডিয়াম আরব হেভি ক্রুডের ওএসপি কমিয়েছে সৌদি আরামকো। আগামী জানুয়ারি থেকে জাহাজের জন্য পরিচ্ছন্ন

জ্বালানি ব্যবহার বাধ্যতামূলক করায় উচ্চমাত্রায় সালফারযুক্ত (এইচএসএফও) গ্রেডের জ্বালানি তেল থেকে সৌদি আরবের মার্জিন কমে আসার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। যে কারণে এসব গ্রেডের ওএসপি কমিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। তবে এসব জ্বালানি তেলের ওএসপি প্রত্যাশার তুলনায় কম হ্রাস করা হয়েছে। কারণ আগামী বছর থেকে চীনের পরিশোধন কেন্দ্রগুলোয় উচ্চ সালফারযুক্ত জ্বালানি তেলের চাহিদা বাড়বে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা।

এদিকে এশিয়া মধ্যেপ্রাচ্যের বাজারে  বাড়ালেও ইউরোপের বাজারে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে দাম কমিয়েছে সৌদি আরামকো। এরমধ্যে ইন্টারকন্টিনেন্টাল এক্সচেঞ্জে (আইসিই) জানুয়ারি থেকে আরব লাইট ক্রুডের ওএসপি ব্যারেলপ্রতি ডলার ৮৫ সেন্ট পর্যন্ত মূল্যছাড়ে বিক্রি করা হয়েছে। যেখানে গত ডিসেম্বরে মূল্য ছাড়া ছিল ডলার ৮০ সেন্ট। তবে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ডিসেম্বরের মতো জানুয়ারিতেও দাম অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন