মঙ্গলবার | সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

খবর

১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত ধর্মঘট স্থগিত জ্বালানি তেল ব্যবসায়ীদের

বণিক বার্তা ডেস্ক

১৫ দফা দাবিতে ডাকা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত করেছেন তিন বিভাগের পেট্রল পাম্প ট্যাংক লরি মালিক-শ্রমিকরা। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে গতকাল বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) লিয়াজোঁ কার্যালয়ে সমঝোতা বৈঠক শেষে ঘোষণা দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে বাংলাদেশ জ্বালানি তেল পরিবেশক সমিতির সভাপতি সৈয়দ সাজ্জাদুল করিম এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ওনারা আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা জনগণের ভোগান্তি চাই না। আগামী ১৫ ডিসেম্বর জ্বালানি প্রতিমন্ত্রীর আহ্বানে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে আমাদের দাবিগুলো নিয়ে আলোচনা হবে বলে আমরা আশ্বস্ত হয়েছি। সে পর্যন্ত আমরা কর্মসূচি স্থগিত রাখছি।

বিষয়ে জ্বালানি তেল আমদানি সরবরাহকারী রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন-বিপিসির পরিচালক (বিপণন) সৈয়দ মেহদী হাসান সাংবাদিকদের বলেন, খুবই ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। তাদের যেসব দাবি, তার মধ্যে বিপিসি-সংশ্লিষ্ট বিষয় রয়েছে দুই-তিনটি। বাকিগুলোর বিষয়ে অন্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে।

১৫ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে রোববার তিন বিভাগের ২৬ জেলায় ধর্মঘট শুরু করে বাংলাদেশ পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন ট্যাংক-লরি মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। ১৫ দফা দাবির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলোজ্বালানি তেল বিক্রির প্রচলিত কমিশন কমপক্ষে সাড়ে শতাংশ করা, জ্বালানি তেল ব্যবসায়ীরা কমিশন এজেন্ট নাকি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান, সে বিষয়টি সুনির্দিষ্টকরণ, প্রিমিয়াম পরিশোধ সাপেক্ষে ট্যাংক-লরি শ্রমিকদের লাখ টাকা দুর্ঘটনা বীমা চালুর জন্য নীতিমালা প্রণয়ন, ট্যাংক-লরির ভাড়া বৃদ্ধি, পেট্রল পাম্পের জন্য কলকারখানা প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের লাইসেন্স গ্রহণ বাতিল, পেট্রল পাম্পের জন্য পরিবেশ অধিদপ্তরের লাইসেন্স গ্রহণ বাতিল, সড়ক জনপথ (সওজ) বিভাগ থেকে পেট্রল পাম্পের প্রবেশদ্বারের ভূমির জন্য ইজারা গ্রহণের প্রথা বাতিল, ট্রেড লাইসেন্স বিস্ফোরক লাইসেন্স ছাড়া অন্য দপ্তর বা প্রতিষ্ঠান থেকে লাইসেন্স নেয়ার সিদ্ধান্ত বাতিল।

এদিকে বিপিসির সঙ্গে বৈঠকের পর ধর্মঘট স্থগিত করার পর তিন বিভাগের পেট্রল পাম্প ডিপো থেকে জ্বালানি তেল উত্তোলন বিপণন কার্যক্রম গতকাল দুপুরে স্বাভাবিক হয়ে আসে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন