বুধবার| জানুয়ারি ২২, ২০২০| ৯মাঘ১৪২৬

শিল্প বাণিজ্য

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা

রফতানিমূল্য না ফেরা পর্যন্ত নগদ সহায়তার আবেদনপত্র প্রক্রিয়াকরণ নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক

পণ্য রফতানি হলেও বিক্রয়মূল্য আসছে না দেশে। আবার রফতানি পণ্যের শুধু নথি দেখিয়েই ব্যাংক থেকে নগদ সহায়তা তুলে নিচ্ছে জালিয়াত চক্র। এ অবস্থায় রফতানিমূল্য অপ্রত্যাবাসিত হওয়ার তারিখ থেকে পরবর্তী সর্বোচ্চ দুই বছর পর্যন্ত নগদ সহায়তার আবেদন গ্রহণের সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে আবেদন গ্রহণ করলেও সেটি প্রক্রিয়াকরণ থেকে বিরত থাকতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। গতকাল কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ থেকে জারীকৃত প্রজ্ঞাপনে এ নির্দেশনা দেয়া হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের কোনো রফতানিমূল্য অপ্রত্যাবাসিত (যেকোনো ব্যাংকে) থাকলে রফতানিমূল্য অপ্রত্যাবাসিত হওয়ার তারিখ থেকে পরবর্তী সর্বোচ্চ দুই বছর (৭২০ দিন) পর্যন্ত ওই প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য অপ্রত্যাবাসিত রফতানিমূল্যের বিপরীতে রফতানি ভর্তুকি বা নগদ সহায়তার জন্য দাখিলকৃত আবেদনপত্র সংশ্লিষ্ট অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক কর্তৃক প্রক্রিয়াকরণ ব্যতীত শুধু গ্রহণ করা যাবে।

তবে রফতানিমূল্য অপ্রত্যাবাসিত থাকাকালীন গ্রহণকৃত আবেদনপত্র শর্তসাপেক্ষে প্রক্রিয়াকরণ করা যাবে। শর্তগুলো হলো সংশ্লিষ্ট সময়ের অপ্রত্যাবাসিত রফতানিমূল্য যথাযথভাবে প্রত্যাবাসিত হওয়া অথবা বাংলাদেশ ব্যাংক বা ডিসকাউন্ট কমিটি কর্তৃক অপ্রত্যাবাসিত রফতানিমূল্য প্রত্যবাসনের সময় বৃদ্ধি বা নিয়মিতকরণের অনুমোদন থাকা এবং বাংলাদেশ ব্যাংক বা ডিসকাউন্ট কমিটি প্রদত্ত অনুমোদনপত্রের নির্দেশনা পরিপালন।

এতে বলা হয়, অপ্রত্যাবাসিত রফতানিমূল্য যথাযথভাবে প্রত্যাবাসিত হওয়ার পর প্রযোজ্য বিধিবিধান পরিপালনসাপেক্ষে ওই মূল্যের বিপরীতে রফতানি ভর্তুকি বা নগদ সহায়তার আবেদনপত্র দাখিলযোগ্য হবে। তবে আবেদনপত্র দাখিলের সময় কোনো রফতানিমূল্য অপ্রত্যাবাসিত থাকলে সে আবেদনের ক্ষেত্রেও শর্তসাপেক্ষে ওই নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন