রবিবার| জানুয়ারি ২৬, ২০২০| ১৩মাঘ১৪২৬

দেশের খবর

আমন মৌসুম

চট্টগ্রাম থেকে সাড়ে ১৮ হাজার টন ধান কিনবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম ব্যুরো

চলতি বছর চট্টগ্রাম জেলা থেকে ১৮ হাজার ৪৯৮ টন ধান কিনবে সরকার প্রতি কেজি ২৬ টাকা দরে চট্টগ্রামের প্রায় ৫০ হাজার কৃষকের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করবে খাদ্য অধিদপ্তর

এদিকে ধান কেনায় যাতে কোনো অনিয়ম দুর্নীতি না হয়, সেজন্য কৃষকের তালিকা তৈরি করেছে চট্টগ্রাম কৃষি অধিদপ্তর

চট্টগ্রামের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, চট্টগ্রামের মাঠ পর্যায়ে যারা আমন ধান উৎপাদন করছেন, তাদের মধ্যে থেকে জরিপ চালিয়ে প্রান্তিক কৃষকের একটি তালিকা উপজেলাভিত্তিক ধান ক্রয় কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে

চট্টগ্রাম জেলা খাদ্য বিভাগের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রাম মহানগর ১৫টি উপজেলার কৃষকদের কাছ থেকে ১৮ হাজার ৪৯৮ টন ধান ক্রয় করা হবে এর মধ্যে সন্দ্বীপ থেকে হাজার ৪৩৭ টন, মিরসরাই থেকে হাজার ৮৯ টন, ফটিকছড়ি থেকে হাজার ২২৭  টন, রাঙ্গুনিয়া থেকে হাজার ৫৪৫ টন, বাঁশখালী থেকে হাজার ৫১৯ টন, রাউজান থেকে হাজার ১৭০ টন, লোহাগাড়া থেকে হাজার ১০৩ টন, পটিয়া থেকে হাজার টন, হাটহাজারী থেকে ৯৫৮ টন, চন্দনাইশ থেকে ৮৩৪ টন, আনোয়ারা থেকে ৭০৬ টন, সীতাকুণ্ড থেকে ৬১১ টন, বোয়ালখালী থেকে ৪৫৭ টন, কর্ণফুলী থেকে ৩৬১ টন, নগরীর পাঁচলাইশ থানা থেকে ১১২ টন, পতেঙ্গা থানা থেকে ৭৩ টন এবং ডাবলমুরিং থেকে ৪২ টন আমন ধান সংগ্রহ করা হবে

চলতি আমন মৌসুমে অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে ধান কিনবে সরকার এছাড়া ৩৬ টাকা কেজি দরে সিদ্ধ চাল ৩৫ টাকা কেজি দরে আতপ সংগ্রহ করা হবে গত ২০ নভেম্বর থেকে সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়েছে চাল সংগ্রহের প্রক্রিয়া আগামী বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে তবে চট্টগ্রামে এখনো ধান কেনার প্রক্রিয়া শুরু হয়নি

চট্টগ্রাম জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম জেলায় মোট কৃষক প্রায় ছয় লাখ তবে সবাই ধান চাষ করেন না, যার কারণে প্রাথমিকভাবে যারা ধান চাষ করেন, এমন প্রায় ৫০ হাজার চাষীর একটা তালিকা তৈরি করা হয়েছে সরকার তিন ধরনের চাষীর কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করবে এর মধ্যে মোট সংগৃহীত ধানের ৫০ শতাংশ নেয়া হবে প্রান্তিক চাষী থেকে মাঝারি চাষী থেকে ৩০ শতাংশ এবং ধনী চাষীদের কাছ থেকে ২০ শতাংশ ধান সংগ্রহ করবে সরকার যেসব কৃষকের কৃষি কার্ড ব্যাংক অ্যাকাউন্ট আছে, তাদের তালিকায় রাখা হয়েছে ধান ক্রয়ের টাকা কার্ডধারী কৃষকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি পৌঁছে যাবে বছর কৃষকদের নগদ টাকা দেয়া হবে না

কৃষি অধিদপ্তরের চট্টগ্রামের উপপরিচালক মো. গিয়াস উদ্দিন বণিক বার্তাকে বলেন, আমরা কাদের কাছ থেকে উপজেলা পর্যায়ে ধান সংগ্রহ করব, তার একটি তালিকা পাঠিয়েছি এখন উপজেলা পর্যায়ে যে ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে, সেটা তারা নির্ধারিত চাষী থেকে নিজস্ব পদ্ধতিতে সংগ্রহ করবেন কেউ যেন ধান বিক্রি করতে এসে ফিরে না যান, সেদিকে নজর দিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের অনুরোধ করেছি একজন কৃষকের কাছ থেকে সর্বোচ্চ তিন টন ধান সংগ্রহ করা যাবে

এদিকে মাঠপর্যায়ের কৃষকরা জানান, বোরো মৌসুমে ধান বিক্রির সময় হয়রানির কারণে কম দামে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছে ধান বিক্রি করেছেন তারা বোরো মৌসুমে ধানের দাম না পাওয়ায় লোকসানের সম্মুখীন হতে হয়েছে কৃষকদের তবে কৃষকদের কাছ থেকে সরকারিভাবে সরাসরি ধান কেনার বিষয়টি ইতিবাচক বলে মনে করছেন তারা একই সঙ্গে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তারা যেন অনিয়ম না করতে পারেন, সেদিকে নজর দেয়ার দাবি জানিয়েছেন কৃষকরা

ফটিকছড়ির কৃষক আনোয়ার বলেন, বোরো মৌসুমে ধানের দাম না পাওয়ায় লোকসান টানতে হয়েছে দেশে খাদ্যের চাহিদা বাড়ছে কিন্তু ধানের দাম কেন দিন দিন কমে, সেটাই আমি বুঝি না আশা করি, সরকার প্রান্তিক পর্যায়ের কৃষকদের কথা চিন্তা করে ধানের দাম ঠিক করবে

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন