মঙ্গলবার | জুলাই ০৭, ২০২০ | ২২ আষাঢ় ১৪২৭

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

প্যারিস চুক্তিতে সই করা সত্ত্বেও কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র বাড়াচ্ছে চীন

বণিক বার্তা ডেস্ক

 বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে বেশি কার্বন নিঃসরণ করে চীন তদুপরি আরো নতুন কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করছে দেশটি নতুন পরিকল্পিত কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর কার্যক্রম শুরু হলে চীনের খাতের বিদ্যুৎ উৎপাদন দাঁড়াবে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলোর মোট কয়লাবিদ্যুতের প্রায় সমান বুধবার তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গ্লোবাল এনার্জি মনিটরের গবেষণা প্রতিবেদনে খবর এএফপি

এদিকে ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৯ সালের জুনে দেশটি অনেকগুলো কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করেছে সময় নির্মিত দেশটির কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা প্রায় ৪৩ গিগাওয়াট দেশটির পদক্ষেপ বিশ্বব্যাপী কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদন হ্রাসের পদক্ষেপকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনটিতে

এদিকে চীনের এত বেশি হারে কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদন ২০১৫ সালের প্যারিস জলবায়ু চুক্তির লঙ্ঘন বলে সতর্ক করেছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে রাখার অঙ্গীকার করা হয়েছিল চীনের নতুন কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের অঙ্গীকারের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে এনার্জি মনিটরের প্রতিবেদনে প্রসঙ্গত, চীন প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে

এমনিতেই বিশ্বে সবচেয়ে বেশি কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদন করে চীন এদিকে আরো ১৪৭ দশমিক গিগাওয়াট কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন প্রকল্প উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে বেইজিং এসব প্রকল্প শুরু হলে তা ইইউর চলমান ১৫০ গিগাওয়াট কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতাকে ছাড়িয়ে যাবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে নতুন কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদনসহ দেশটির মোট কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদন দাঁড়াবে হাজার ১৭৪ দশমিক গিগাওয়াট

উল্লেখ্য, চীনের প্রাদেশিক সরকারগুলো গত দুই বছরে এসব কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর অনুমোদন দিয়েছে দেশটির আঞ্চলিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি চাঙ্গা করার অংশ হিসেবে প্রাদেশিক সরকারগুলো দ্রুত এসব প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে এদিকে কয়লাবিদ্যুৎ কমানো কেন্দ্রীয় সরকারের নীতি হওয়া সত্ত্বেও নবায়নযোগ্য বিদ্যুতের দিকে দেশটির যাত্রা বেইজিংয়ের চলমান শ্লথ অর্থনীতিকে আরো সঙ্গিন করে তুলতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে

কয়লাবিদ্যুৎ নিয়ে চীনের অবস্থান সম্পর্কে গ্লোবাল এনার্জি মনিটরের পরিচালক ক্রিস্টাইন শেয়ারার এএফপিকে বলেন, কয়লাবিদ্যুৎ-সংশ্লিষ্ট শিল্প অব্যাহত রাখার মধ্যে যে একটা বিপদ রয়েছে, চীনা নেতারা সেটা ভালো মতো উপলব্ধি করতে পারছেন

এদিকে আন্তর্জাতিক জ্বালানি সংস্থা গত সপ্তাহে জানায়, বিশ্বে বর্তমানে যে জ্বালানি নীতিমালা রয়েছে, তা দুনিয়াজুড়ে কয়েক কোটি মানুষকে বিদ্যুেসবা দিতে পারছে না এছাড়া পরিস্থিতিতে কার্বন নিঃসরণ চলমান বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনকে আরো বেশি তীব্র করে তুলতে পারে বলেও জানায় সংস্থাটি

অন্যদিকে জ্বালানি নির্মল বায়ু গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বিশ্লেষক লরি মেল্লাভার্টা বলেন, চীন নিজেদের দেশের

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন