মঙ্গলবার | জুলাই ০৭, ২০২০ | ২৩ আষাঢ় ১৪২৭

খবর

‘এটাকে বলতে পারেন বাছাইকৃত বইয়ের মেলা’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ প্রাঙ্গণে গতকাল মঙ্গলবার শুরু হয়েছে ‘৫ম নন-ফিকশন বইমেলা ২০১৯’। আজ বুধবার মেলার দ্বিতীয় দিনে জমে উঠেছে মেলা। শিশু-কিশোর, নারী-পুরুষ সবধরনের পাঠকের সমাগম হয়েছে মেলায়।

মেলায় কথা হলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী অনন্যার সঙ্গে। অনেকদিন ধরেই চীন দর্শনের একটি বই খুঁজছিলেন। নন-ফিকশন বইমেলায় খুঁজে পেয়েছেন বইটি। তিনি বললেন, ‘আসলে আমাদের দেশে এতবড় একটা মেলা (অমর একুশে গ্রন্থমেলা) হয়, তাও আবার মাস জুড়ে। তাই হয়তো এই মেলা তেমন গুরুত্ব পাচ্ছে না। তবে আমার কাছে এই বইমেলার গুরুত্ব অনেক। আসলে এটা বলতে পারেন বাছাইকৃত বইয়ের মেলা। এখানে প্রতিটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান তাদের বাছাইকৃত নন-ফিকশন বইগুলো নিয়ে এসেছেন। এটা সত্যিই খুব কাজে দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের মানুষের পাঠাভ্যাস এমনিতেই কম। তারওপর নন-ফিকশন বই শুনলেতো আরো ভয় পান অনেকেই। তবে আমি মনে করি জ্ঞানার্জনের জন্য নন-ফিকশন বই অতুলনীয়। শুধু বিনোদনের জন্য নয়, জানার জন্য নন-ফিকশন বই; যা আপনাকে আরো সমৃদ্ধ করবে। 

গতকাল শুরুর দিনে দর্শনার্থীদের বেশ সমাগম ঘটলেও প্রত্যাশা অনুযায়ী বেচাকেনা হয়নি বলে জানালেন প্রকাশকরা। তাদের ধারণা, মেলার প্রথমদিন বই বাছাই করতে সময় নিয়েছেন অনেকেই। আজ দ্বিতীয় দিন ও আগামীকাল শেষ দিনে অনেকেই বইগুলো সংগ্রহ করবেন। 

ঢাবির আইবিএর শিক্ষার্থী আজিজুল ইসলাম বলেন, মেলায় বেশ কিছু রেফারেন্স বই পেয়েছি। আসলে অনেকসময় বইগুলো খুঁজে পাওয়া যায় না। হাতের কাছে পেলাম কিনে রাখলাম। আর মেলায় সব বইয়ে ৩০ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাচ্ছে। আমাদের জন্য এটা ভালো একটা সুযোগ।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন