শুক্রবার | ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

খবর

‘এটাকে বলতে পারেন বাছাইকৃত বইয়ের মেলা’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ প্রাঙ্গণে গতকাল মঙ্গলবার শুরু হয়েছে ‘৫ম নন-ফিকশন বইমেলা ২০১৯’। আজ বুধবার মেলার দ্বিতীয় দিনে জমে উঠেছে মেলা। শিশু-কিশোর, নারী-পুরুষ সবধরনের পাঠকের সমাগম হয়েছে মেলায়।

মেলায় কথা হলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী অনন্যার সঙ্গে। অনেকদিন ধরেই চীন দর্শনের একটি বই খুঁজছিলেন। নন-ফিকশন বইমেলায় খুঁজে পেয়েছেন বইটি। তিনি বললেন, ‘আসলে আমাদের দেশে এতবড় একটা মেলা (অমর একুশে গ্রন্থমেলা) হয়, তাও আবার মাস জুড়ে। তাই হয়তো এই মেলা তেমন গুরুত্ব পাচ্ছে না। তবে আমার কাছে এই বইমেলার গুরুত্ব অনেক। আসলে এটা বলতে পারেন বাছাইকৃত বইয়ের মেলা। এখানে প্রতিটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান তাদের বাছাইকৃত নন-ফিকশন বইগুলো নিয়ে এসেছেন। এটা সত্যিই খুব কাজে দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের মানুষের পাঠাভ্যাস এমনিতেই কম। তারওপর নন-ফিকশন বই শুনলেতো আরো ভয় পান অনেকেই। তবে আমি মনে করি জ্ঞানার্জনের জন্য নন-ফিকশন বই অতুলনীয়। শুধু বিনোদনের জন্য নয়, জানার জন্য নন-ফিকশন বই; যা আপনাকে আরো সমৃদ্ধ করবে। 

গতকাল শুরুর দিনে দর্শনার্থীদের বেশ সমাগম ঘটলেও প্রত্যাশা অনুযায়ী বেচাকেনা হয়নি বলে জানালেন প্রকাশকরা। তাদের ধারণা, মেলার প্রথমদিন বই বাছাই করতে সময় নিয়েছেন অনেকেই। আজ দ্বিতীয় দিন ও আগামীকাল শেষ দিনে অনেকেই বইগুলো সংগ্রহ করবেন। 

ঢাবির আইবিএর শিক্ষার্থী আজিজুল ইসলাম বলেন, মেলায় বেশ কিছু রেফারেন্স বই পেয়েছি। আসলে অনেকসময় বইগুলো খুঁজে পাওয়া যায় না। হাতের কাছে পেলাম কিনে রাখলাম। আর মেলায় সব বইয়ে ৩০ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাচ্ছে। আমাদের জন্য এটা ভালো একটা সুযোগ।

মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলো হলো দি ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড (ইউপিএল), প্রথমা প্রকাশন, ডেইলি স্টার বুকস, বাতিঘর, শ্রাবণ প্রকাশনী, সংহতি প্রকাশনী, দিব্যপ্রকাশ, একাডেমিক প্রেস অ্যান্ড পাবলিশার্স লিমিটেড (এপিপিএল), জাগৃতি প্রকাশনী, মাওলা ব্রাদার্স, সাহিত্য প্রকাশ, অনুপম প্রকাশনী, অবসর প্রকাশনা সংস্থা, সময় প্রকাশন, অ্যাডর্ন পাবলিকেশন, আগামী প্রকাশনী, নালন্দা প্রকাশনী, অনন্যা, কথাপ্রকাশ, কাকলী প্রকাশনী, আলোঘর, ঐতিহ্য, এশিয়াটিক সোসাইটি অব বাংলাদেশ, জাতীয় সাহিত্য প্রকাশ, এ এইচ ডেভেলপমেন্ট পাবলিশিং হাউজ ও বাংলা একাডেমি।

মেলার বিভিন্ন আয়োজন: যেকোনো প্রকাশনার স্টল থেকে প্রতি ১০০ টাকা সমমূল্যের বই কেনার জন্য থাকছে একটি করে কুপন। বণিক বার্তার স্টলে মানি রিসিট দেখিয়ে কুপন সংগ্রহ করতে পারবেন ক্রেতারা। সেই কুপন দেখিয়ে প্রতিদিন রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে র‌্যাফল ড্র। আজ দ্বিতীয় দিনের র‌্যাফল ড্র-তে প্রথম পুরস্কার হিসেবে থাকবে ঢাকা-মালয়েশিয়া-এয়ার টিকেট। এছাড়াও রয়েছে রাইস কুকার, আয়রন মেশিন, থার্মোফ্লাস্ক, ব্যাকপ্যাক, মূল্যবান বইসহ আকর্ষণীয় উপহার। র‌্যাফেল ড্রয়ের সময় উপস্থিত দর্শনার্থীদের জন্য থাকছে আরেকটি র‌্যাফল ড্র। সেখানে বিজয়ীদের জন্যও বণিক বার্তার পক্ষ থেকে থাকছে মূল্যবান বই, টিশার্ট, মগসহ আকর্ষণীয় পুরস্কার।

ফটো কনটেস্ট: পাঠকদের জন্য এবারের মেলার আরেকটি আকর্ষণ হচ্ছে ফটো কনটেস্ট। মেলায় ছবি তুলে তা ফেসবুকে পোস্ট করে জিতে নিতে পারেন ঢাকা-কুয়ালালামপুর-ঢাকা এয়ার টিকেট। সর্বোচ্চ লাইক ও শেয়ারপ্রাপ্ত ছবি পোস্টকারী হবেন এ প্রতিযোগিতার বিজয়ী। এজন্য আগ্রহীদের ‘নন-ফিকশন বইমেলা ২০১৯’ ফেসবুক ইভেন্টে যুক্ত হয়ে ছবি পোস্ট করতে হবে। ছবির পোস্টে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করতে হবে (#Bonikbarta #Nonfictionbookfair2019। এছাড়াও ছবিটির চেকইন-এ Daily Bonik Barta নির্ধারণ করে দিতে হবে। বণিক বার্তার ফেসবুক পেজ ও ইভেন্ট পেজে এ কনটেস্টের ফলাফল জানিয়ে দেয়া হবে।

মেলাটিতে সহযোগিতা করছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, এক্সিম ব্যাংক বাংলাদেশ, বিকাশ, জাফলং টি, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (এসআইবিএল), সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, রূপালী ব্যাংক লিমিটেড, পূবালী ব্যাংক লিমিটেড এবং খান’স কিচেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন