শুক্রবার | ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দেশের খবর

বেনাপোল কাস্টম হাউজ: ভল্টের তালা খোলা ৫ কর্মী বরখাস্ত

বণিক বার্তা প্রতিনিধি যশোর

 তিনদিনের ছুটিতে বন্ধ ছিল যশোরের বেনাপোল কাস্টম হাউজ। ছুটি শেষে কর্মকর্তারা গতকাল এসে দেখেন ভল্টের তালা বেহাত খোলা। একই সঙ্গে বিকল হয়ে রয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা। এ ঘটনায় পাঁচ কর্মীকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। সংশ্লিষ্টদের আশঙ্কা, ছুটির মধ্যে বিকল্প চাবি দিয়ে তালা খুলে ভল্টে গচ্ছিত স্বর্ণ ও বৈদেশিক মুদ্রাসহ মূল্যবান সামগ্রী চুরি করা হয়েছে।

সাময়িক বরখাস্তকৃতদের মধ্যে বেনাপোল কাস্টম হাউজের ভল্ট ইনচার্জ (এআরও) সাহাবুল সরদার রয়েছেন। বাকিরা নিরাপত্তা কর্মী। তবে তাদের নাম জানা যায়নি।

জানা গেছে, সাপ্তাহিত ছুটি ও ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে গত শুক্রবার থেকে রোববার পর্যন্ত বন্ধ ছিল বেনাপোল কাস্টম হাউজ। হাউজের কার্যালয়ের অবস্থান ভারতীয় সীমান্তের ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট এলাকায়। এখানে থাকা ভল্টে বিভিন্ন সময়ে আটক স্বর্ণ ও বৈদেশিক মুদ্রা গচ্ছিত রাখা হয়। ছুটি শেষে কর্মকর্তারা গতকাল সকালে হাউজে এসে দেখেন ভল্টের তালা খোলা ও সিসিটিভি বিকল অবস্থায় রয়েছে। তালা খোলা পেয়ে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়। পুলিশের ধারণা, ছুটির মধ্যে বিকল্প চাবি দিয়ে তালা খুলে ভল্টে গচ্ছিত স্বর্ণ ও বৈদেশিক মুদ্রাসহ মূল্যবান সামগ্রী চুরি করা হয়েছে। তবে বেনাপোল কাস্টম হাউজের কর্মকর্তারা এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করছেন না।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান জানান, বেনাপোল কাস্টমসের ভল্টে বিকল্প চাবি ব্যবহার করে চুরির ঘটনা ঘটেছে। কী পরিমাণ পণ্য খোয়া গেছে, তার গণনা কাজ চলছে। তবে সেখানে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ ছিল বলে জেনেছি।

যশোর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম বলেন, কী পরিমাণ মূল্যবান পণ্য খোয়া গেছে তার গণনার কাজ করছি।

বেনাপোল কাস্টম হাউজের কমিশনার বেলার হুসাইন চৌধুরী জানান, চুরির ঘটনায় এআরও  সাহাবুল সরদারসহ পাঁচজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রেজিস্ট্রার মেলানো হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন