শনিবার | ডিসেম্বর ০৭, ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দেশের খবর

বগুড়ার জমি নিয়ে বিরোধে বৃদ্ধা নিহত, আহত ৯

বণিক বার্তা অনলাইন

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের সোনাকানিয়া গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধে বৃদ্ধা সফুরা বেওয়া (৬৫) নিহত এবং আহত হয়েছে কমপক্ষে ৯ জন। আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এঘটনায় সোনাতলা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ জনকে থানায় নেয়া হয়েছে।

বগুড়ার সোনাতলা থানা পুলিশ জানায়, উপজেলার সোনাকানিয়া গ্রামের মৃত কাশেম মন্ডলের ছেলে অ্যাড. শহিদুল ইসলামের সাথে পাশ্ববর্তী একই গ্রামের মৃত ফজল হকের ছেলে আব্দুল হালিম মাস্টারের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এবিষয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বিভিন্ন সময় সংঘর্ষ হয়েছে এবং আদালতে মামলাও চলছে।

গত রবিবার দুপুরে ১০ নভেম্বর হালিম মাস্টারের লোকজন প্রতিপক্ষ অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় হালিম মাস্টারের লোকজন প্রতিপক্ষ অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলামের পরিবারের লোকজনকে মারধর, আসবাবপত্র ভাংচুর করে। প্রতিপক্ষের মারপিটে অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলাম (৪৮), তার স্ত্রী তহমিনা (৪২), মা সফুরা বেওয়াসহ (৬০) দুদু মিয়ার ছেলে মাফিল (৪০), মিনহাজ সরকারের ছেলে রশিদ সরকার (৩৫), কাশেম মন্ডলের ছেলে জাহিদুল (৪০), মৃত সামাদের ছেলে সামসুল আলম (৫৫), টুকু মন্ডলের ছেলে এরফান (৪৫), হেলালের স্ত্রী রেবেকা বেগম (৩০) ও মিনহাজ সরকারের স্ত্রী রওশন আরা (৫৫) আহত হন।

আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে সোনাতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে করলে সোমবার ভোরে ১১ নভেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলামের মা বৃদ্ধা সফুরা বেওয়ার মৃত্যু হয়।

বগুড়ার সোনাতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মাসউদ চৌধুরী জানান, বৃদ্ধা হত্যার ঘটনায় তিনজনকে আটক করে থানায় নেয়া হয়েছে। তাদের এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে।

বগুড়ার সোনাতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অ্যাড. শহিদুল ইসলাম বলেন, ক্রয়করা জমিতে বসতবাড়ি নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছি। ওই জমি জোড়পূর্বক দখলের জন্য প্রতিপক্ষের লোকজন অতর্কিতভাবে আমার পরিবারের উপর হামলা করে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন