রবিবার | জুলাই ১২, ২০২০ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭

সংকেত

আইপিওর পর শীর্ষ স্টার্টআপদের তিক্ত অভিজ্ঞতা

য়াল স্ট্রিটে গত বছর বেশ কয়েকটি শীর্ষস্থানীয় স্টার্টআপ কোম্পানির আইপিওতে আসার গুঞ্জন চলছিল। এরই মধ্যে বছর অন্যতম শীর্ষ স্থানীয় স্টার্টআপ কোম্পানি লিফট উবার আইপিওতে এসেছে। উইওয়ার্ক এয়ার বিএনপিরও বছরের মধ্যে আইপিওতে আসার কথা ছিল। কিন্তু উইওয়ার্কের হাজার ৭০০ কোটি ডলার ভ্যালুয়েশন নিয়ে এর শেয়ারহোল্ডাররা প্রশ্ন তুললে কোম্পানিটি সামনের বছর আইপিওতে আসার ঘোষণা দেয়। উইওয়ার্কের পর এয়ার বিএনপিও আগামী বছর আইপিওতে আসার কথা জানিয়েছে। তাছাড়া আরো বেশকিছু শীর্ষস্থানীয় র্স্টাটআপ কোম্পানিও আইপিও পাইপলাইনে রয়েছে। সম্ভাবনাময় এসব স্টার্টআপ কোম্পানি তাদের শেয়ারের ভ্যালুয়েশন বাড়ানোর পাশাপাশি ভবিষ্যত্ বিনিয়োগের পথ মসৃণ করতেই আইপিওতে আসছে বলে মনে করছেন ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকাররা। তবে লোকসানের কারণে আইপিওতে আসার পরই লিফট উবারের মতো শীর্ষস্থানীয় স্টার্টআপ কোম্পানির শেয়ারের ভ্যালুয়েশনে ধস নেমেছে। অন্যদিকে মুনাফা করায় জুম ভিডিওর ভ্যালুয়েশন বেড়েছে।

লিফট ইনকরপোরেশন: ক্যালিফোর্নিয়ার সানফ্রান্সিকোভিত্তিক রাইড শেয়ারিং কোম্পানি লিফট ইনকরপোরেশন বছরের মার্চে আইপিওতে আসে। শেয়ারপ্রতি ৭২ ডলারে লেনদেন শুরুর পর প্রথম দিনেই কোম্পানিটির শেয়ার ৭৮ দশমিক ডলারে দাঁড়ায়। এতে কোম্পানিটির শেয়ারের ভ্যালুয়েশন দাঁড়ায় হাজার ৬৬০ কোটি ডলারে। তবে বছরের মার্চ প্রান্তিকের আর্থিক ফলাফলে লোকসানের কারণে কোম্পানিটির শেয়ারদর ২৭ শতাংশ কমে যায় এবং এতে কোম্পানিটির ভ্যালুয়েশন বছরের সেপ্টেম্বরে হাজার ৫০০ কোটি ডলারে নেমে আসে। সর্বশেষ গত শুক্রবার নাসডাকে কোম্পানিটির শেয়ার ৪৩ দশমিক ২৩ ডলারে লেনদেন হয়েছে এবং কোম্পানিটির ভ্যালুয়েশন দাঁড়িয়েছে হাজার ২৮৭ কোটি ডলারে। গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে কোম্পানিটির ৩৯ শতাংশ মার্কেট শেয়ার ছিল। ২০১৮ সালে কোম্পানিটির ৯১ কোটি ডলার লোকসানের বিপরীতে ২২০ কোটি ডলারের রেভিনিউ হয়েছে।

উবার টেকনোলজিস ইনকরপোরেশন: সানফ্রান্সিকোভিত্তিক আরেক শীর্ষস্থানীয় রাইড শেয়ারিং স্টার্টআপ উবার টেকনোলজিস ইনকরপোরেশ বছরের মে মাসে আইপিওতে আসে। গত বছরের অক্টোবরে কোম্পানিটির ভ্যালুয়েশন ১২ হাজার কোটি ডলার থাকলেও আইপিওতে আসার সময় এটি হাজার ৫০০ কোটি ডলারে নেমে আসে। মূলত একই খাতের আরেক কোম্পানি লিফটের নড়বড়ে শেয়ারদরের কারণে উবারকে নিয়েও বিনিয়োগকারীদের মধ্যে সন্দেহ দেখা দেয়। তার ওপর বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের আর্থিক ফলাফল অনুসারে উবারের ৫২০ কোটি টাকা লোকসানের প্রভাব পড়েছে কোম্পানিটির শেয়ারদরে। আইপিওতে আসার সময় উবারের শেয়ার ৪৫ ডলারে লেনদেন হলেও সর্বশেষ গত শুক্রবার এর শেয়ারদর ২৭ ডলারে নেমে এসেছে। কোম্পানিটির ভ্যালুয়েশন দাঁড়িয়েছে হাজার ৬০৭ কোটি ডলার। উবারের সিইও দারা খাসরোশাহী ২০১৯ সালকে কোম্পানিটির

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন