মঙ্গলবার | নভেম্বর ১২, ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

খেলা

আশায় শুরু আক্ষেপে শেষ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

 প্রতিকূল পরিবেশে দিল্লিতে প্রথম টি২০ জিতে প্রত্যাশার পারদটা উপরে তুলে দিয়েছিল টাইগাররা যেখানে রাজকোটে জিতলেই নিশ্চিত সিরিজ এমন পরিস্থিতিতে টসে হেরেই শুরুটা হয় বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের আগে ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা বলেছিলেন, টস জিতে আগে ব্যাট করবেন তারা তখন তিনি বলেছিলেন, বিশ্বকাপ সামনে রেখে নিজেদের পরীক্ষায় ফেলতে চান দিল্লির সে ম্যাচে টস জিতে রোহিতকে পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদই কিন্তু সেদিনের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেননি রোহিতরা দারুণ খেলে ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ গতকাল টসে জিতে অবশ্য আর পরীক্ষা দিতে যাননি রোহিত বাংলাদেশকেই পাঠালেন আগে ব্যাট করতে দুই ওপেনার লিটন দাস মোহাম্মদ নাঈম শেখ অবশ্য এদিনও রোহিতকে শুরুতে উপহার দেন দুঃস্বপ্ন ইঙ্গিত দেন বড় সংগ্রহ গড়ার তবে শুরু এবং শেষটা একই তালে না হওয়ায় কিছুটা হতাশই করেছে বাংলাদেশের ব্যাটিং এর পর বোলাররাও ভালো কিছু করতে না পারায় ম্যাচটি হেরে যায় বাংলাদেশ

ব্যাটিং উইকেটে আগে থেকেই বলা হচ্ছিল বড় সংগ্রহ গড়ার কথা আগে ব্যাটিং করায় দুই ওপেনার লিটন নাঈমের দিকেই তাকিয়ে ছিল সবাই দীপক চাহারের প্রথম ওভারে লিটন নিলেন রান তবে খলিল আহমেদকে আগের ম্যাচে মুশফিকুর রহিম যেখানে রেখে এসেছিলেন, সেখান থেকেই যেন শুরু করলেন নাঈম সেই ম্যাচে খলিলের তিন বলে তিন চার মেরে জয়টাকে মুঠোয় নিয়ে এসেছিলেন মুশফিক আর গতকাল তার করা দ্বিতীয় ওভারের প্রথম তিন বলেই তিন চার মারলেন নাঈম খলিলের এক ওভারেই এল ১৪ রান প্রথম চার ওভারে বাংলাদেশের দুই ওপেনার জড়ো করলেন ৩১ রান পাঁচ ওভারে গিয়ে সেটি দাঁড়াল ৪১ তখন মনে হচ্ছিল ১৭০-এর উপরে রান হয়তো অনায়াসেই হবে এর মাঝে দুবার জীবনও পেলেন লিটন দাস প্রথমে স্টাম্পিংয়ের শিকার হয়েও বেঁচে যান লিটন যুজবেন্দ্র চাহালকে সামনে বেরিয়ে খেলতে গিয়ে বল মিস করলে স্টাম্প ভেঙে দেন কিপার ঋষভ পান্ত কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায়, বল ধরার আগে গ্লাভসের কিছু অংশ ছিল স্টাম্পের বাইরে সিদ্ধান্ত বদলে টিকে যান লিটন পরের ওভারে লিটনের ক্যাচ হাত থেকে ফেলে দেন রোহিত কিন্তু দু-দুবার জীবন পেয়েও বাঁচতে পারেননি লিটন পরের ওভারে নিজের ভুলেই রানআউট হয়ে ফিরতে হয় তাকে লিটন ফিরলেও ততক্ষণে . ওভারে স্কোরবোর্ডে জমা পড়েছে ৬০ রান নাঈমকে নিয়ে দলকে এগিয়ে নেন সৌম্য


আগের ম্যাচে ২৬ রান করা নাঈম এদিনও ব্যাট হাতে ছিলেন আরো সাবলীল অবশ্য ৩৬ রান করে সম্ভাবনা জাগিয়েও ফিরতে হয় তাকে তবে দুই ম্যাচ খেলেই ব্যাট হাতে দলকে আশা দেখাচ্ছেন তরুণ বাঁহাতি চাপ সামলে খেলার দক্ষতাও দেখিয়েছেন এর মধ্যে যদিও তাকে এখনো অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হবে নাঈম ফেরার পর সবাই তাকিয়ে ছিল মুশফিকের দিকে আগের ম্যাচে মুশফিকের ব্যাটেই মূলত জয়ের দেখা পেয়েছিল বাংলাদেশ স্লগ সুইপ খেলতে গিয়ে মুশফিকও ফিরে গেলে বড় সংগ্রহের সম্ভাবনা কমে আসতে থাকে বাংলাদেশের

সেই সম্ভাবনা আরো কমে যায় একই ওভারে মারমুখী সৌম্য ফিরে গেলে যদিও ১৩ ওভারে তখন বাংলাদেশের রান ১০০-এর কোটা পার করেছিল সেখান থেকেই মাহমুদউল্লাহ-আফিফদের সামনে সুযোগ ছিল সংগ্রহ বড় করার কিন্তু শ্লথ ব্যাটিংয়ে ক্রমেই পিছিয়ে যেতে থাকে বাংলাদেশ খলিলের এক ওভারে ১৩ রান নেয়া ছাড়া আর বলার মতো কিছুই করতে পারেননি ব্যাটসম্যানরা শেষ দুই ওভারে এসেছে মাত্র ১৩ রান সব মিলিয়ে যে সম্ভাবনা জাগিয়ে লিটন-নাঈম শুরু করেছিলেন, সেভাবে শেষটা করতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ-মোসাদ্দেকরা বল হাতে মুস্তাফিজ-শফিউলরাও ব্যর্থ হলে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় বাংলাদেশকে

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন