মঙ্গলবার | নভেম্বর ১২, ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

টকিজ

দেশী-বিদেশী সাহিত্যিকদের মিলনমেলা

শুরু হয়েছে ঢাকা লিট ফেস্টের নবম আসর

ঘড়িতে সকাল ১০টা। বাংলা একাডেমির ভেতরে ঢুকতেই সাজসাজ রব চোখে পড়ে। ফুলেল সাজে সজ্জিত একাডেমির বিভিন্ন ভবন। বসেছে হরেক রকমের স্টল। এসব স্টল ঘিরে দেশী-বিদেশী নানা মানুষের সমাগম। অনেকে আবার এসব স্টলের সামনে গিয়ে ব্যস্ত সেলফি তোলায়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে একাডেমি চত্বরে ভিড়টা যেন আরেকটু বেড়ে যায়। ভবনের মূল ফটক দিয়ে একের পর এক দেশী-বিদেশী খ্যাতনামা ব্যক্তিরা ঢুকতে থাকেন। ঢোকামাত্র স্বনামধন্য ব্যক্তিদের সঙ্গে এক ফ্রেমে নিজেদের বন্দি করতে অনেকে ছুটে আসেন তাদের কাছে। এটা ছিল বাংলা একাডেমির গতকালের চিত্র। শুরু হয়েছে ঢাকা লিট ফেস্টের (ডিএলএফ) নবম আসর। প্রতি বছরের মতো এবারো বাংলা একাডেমিতে করা হয়েছে এ আয়োজন।

বেলা সাড়ে ১১টায় আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ অডিটোরিয়ামে তিন দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধন করেন সংস্কৃতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ এবং বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ও ম্যানবুকার পুরস্কারে চূড়ান্ত তালিকায় মনোনীত লেখক মনিকা আলী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন লিট ফেস্টের পরিচালক কাজী আনিস আহমেদ ও সাদাফ সায্, আহসান আকবর, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবিবুল্লাহ সিরাজীসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরু হয় সাধনা নৃত্যগোষ্ঠীর পরিবেশনার মাধ্যমে।


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ বলেন, ‘২০১১ সালে যার যাত্রা শুরু হয়েছিল, আজকে তার নবম আসর। বাংলার সাহিত্যকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে ঢাকা লিট ফেস্টের আয়োজন। আমাদের আশা, এক দিন এই লিট ফেস্ট বাংলাকে বহির্বিশ্বের কাছে তুলে ধরবে। আয়োজনের সমৃদ্ধির জন্য সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় সহযোগিতা করছে। আগামী বছর আয়োজনের মান আরো বাড়বে বলে আশা করছি।

ঢাকা লিট ফেস্ট হলো সাহিত্যের খোলা মঞ্চ, যেখানে বসে দেশী-বিদেশী সাহিত্যিকদের মিলনমেলা। এ মঞ্চে শিল্প, সাহিত্য, চলচ্চিত্র, রাজনীতি, ধর্ম, সমাজ, বিজ্ঞানসবকিছু নিয়ে আলাপ চলে। গত আট বছরে বিজ্ঞানী, চিকিৎসক, গণিতবিদসবার পদচারণা ছিল লিট ফেস্টে। উৎসবে দেশী-বিদেশী সাহিত্যিকরা তাদের মুক্তচিন্তা, লেখালেখি, কাজ নিয়ে নানা আলাপ-আলোচনা তুলে ধরেন। এবারো এর ব্যতিক্রম হচ্ছে না।


ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালক আহসান আকবর গতকাল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন, ‘তিনদিনের এ উৎসবে দেশী-বিদেশী সাহিত্যকে তুলে ধরা হবে। ঢাকা লিট ফেস্ট সাহিত্যের সঙ্গে বিজ্ঞান, বিজ্ঞানের সঙ্গে কবিতা, কবিতার সঙ্গে কলার মেলবন্ধন ঘটায়। এবারের আয়োজনে বাকস্বাধীনতা, বহুত্ববাদ এবং রাজনীতির বিভিন্ন প্রেক্ষাপট ও মুক্তচিন্তার ওপর গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

এ বছর প্রায় দুই শতাধিক বক্তা, পারফরমার ও চিন্তাশীল লেখক লিট ফেস্টের আয়োজনে যোগ দিচ্ছেন। বিদেশী লেখক-সাহিত্যিকদের মধ্যে রয়েছেন উপমহাদেশের অন্যতম সাহিত্য ব্যক্তিত্ব শংকর, পুলিত্জার পুরস্কারজয়ী লেখক জেফরি গেটলম্যান, ভারতীয় রাজনীতিবিদ ও লেখক শশী থারুর, ইতিহাসভিত্তিক লেখক উইলিয়াম ডালরিম্পল, কবি তিশানি দোশি। এছাড়া স্বনামধন্য ও উদীয়মান লেখকদের মধ্যে প্রথমবারের মতো ঢাকা লিট ফেস্টে অংশ নিয়েছেন সাহিত্যিক মনিকা আলী, ডিএসসি পুরস্কারজয়ী সাহিত্যিক এইচএম নাকভি, প্রেয়াগ আকবরসহ বেশ কয়েকজন। আরো অংশ নিচ্ছেন ব্রাজিল, নেদারল্যান্ডসসহ বেশ কয়েকটি দেশের সাহিত্যিকরাও। বিদেশী সাহিত্যিকদের পাশাপাশি বাংলাভাষী সাহিত্যিক স্বপ্নময় চক্রবর্তী, কবি ও সাংবাদিক মৃদুল দাশগুপ্ত, কথাসাহিত্যিক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ইমদাদুল হক মিলন, শাহীন আখতার প্রমুখ সাহিত্যিকরা এ উৎসবে অংশ নিচ্ছেন। এছাড়া এবারের সাহিত্য উৎসবে অংশগ্রহণ করছেন অনেক তরুণ লেখকও।

ঢাকা লিট ফেস্ট ২০১৯-এব্যতিক্রমী ও বহুতত্ত্ব, দেশী ও বিদেশী ভাষা এবং সংস্কৃতি, নারীদের শক্ত আওয়াজ ও বাকস্বাধীনতার ওপর গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশের প্রাণবন্ততা ও সৃজনশীলতা তুলে ধরতে লোক ও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক নানা দিকের আলোচনার ওপর জোর দেয়া হয়েছে। তবে লিট ফেস্টে যে শুধু সাহিত্যিক আলাপ-আলোচনা চলে, তা নয়। এখানে থাকে গান, বসে কবিতার আসর। এসব আসর ঘিরে জমে ওঠে আড্ডা।

এবারের লিট ফেস্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে অনেকগুলো সেশন রাখা হয়েছে। আজ দুপুরেশেখ মুজিব: আইকন অব পোস্ট কলোনিয়াল লিবারেশন শিরোনামে আলোচনার আয়োজন করা হয়েছে। এতে আফসান চৌধুরী, কামাল চৌধুরী, শশী থারুর মতো ব্যক্তিত্বরা কথা বলবেন। এছাড়া বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রয়েছে কবিতা পাঠের আসর। গতকাল লায়লা আফরোজ, বেলায়েত হোসেন, রফিকুল ইসলাম প্রমুখরা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা পাঠ করেন। এছাড়া আজ সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর নির্মিত ডকুমেন্টারি ফিল্ম ‘‘হাসিনা: আ ডটারস টেল’’ প্রদর্শিত হবে। প্রদর্শনী শেষে নির্মাতা পিপলু আর খান ডকুমেন্টারিটি তৈরির অভিজ্ঞতা নিয়ে কথা বলবেন।

গতকাল লিট ফেস্টের প্রথম দিন বাংলা একাডেমির আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে জেমকন তরুণ কথাসাহিত্য পুরস্কার ও তরুণ কবিতা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।  ২০১৯ সালের জন্য এ পুরস্কার পেয়েছেন যথাক্রমে অভিষেক সরকার ও রফিকুজ্জামান রণি।

ঢাকা লিট ফেস্ট শেষ হবে ৯ নভেম্বর। প্রতিদিনের আয়োজন চলবে সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত।

 

রাইসা জান্নাত

ছবি: পলাশ শিকদার

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন