শুক্রবার | ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পণ্যবাজার

পাওয়ার অব সাইবেরিয়া

রুশ-চীন সম্পর্ক মজবুত করবে যে গ্যাস পাইপলাইন

বণিক বার্তা ডেস্ক

 স্নায়ুযুদ্ধের সময় পরম বন্ু্ল ছিল রাশিয়া চীন কিন্তু পরবর্তী সময়ে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে শত্রুতেও পরিণত হয় দেশ দুটি যদিও ভূরাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে দেশ দুটির মধ্যকার সম্পর্ক উত্থান-পতনের মধ্য দিয়েই গেছে তবে বর্তমান প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ভ্লাদিমির পুতিনের মধ্যকার সম্পর্ক বেশ বন্ধুত্বপূর্ণ আর রাশিয়া-চীনের মধ্যে নির্মিতব্য নতুন পাইপলাইন পুরনো সেই সম্পর্ক আরো উষ্ণ করতে পারবে বলে মনে করা হচ্ছে পাওয়ার অব সাইবেরিয়া নামে পরিচিত চার হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ পাইপলাইন দিয়ে আগামী ডিসেম্বর থেকে চীনে গ্যাস সরবরাহ করবে রাশিয়া

এলএনজি আমদানিতে বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ দেশ চীন অর্থনৈতিক শ্লথগতির কারণে দেশটিতে এলএনজি খাতে মন্দা ভাব দেখা গেলেও আগামীতে জাপানকে টপকে শীর্ষ এলএনজি আমদানিকারকের তকমা অর্জন করতে পারবে বলে ধারণা করছেন খাতসংশ্লিষ্টরা অন্যদিকে এলএনজি জ্বালানি তেলের বাজারে রাশিয়ার আধিপত্য দিন দিন বাড়ছে অবস্থায় দুই দেশের মধ্যে গ্যাস সরবরাহে হাজার ২০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করে পাইপলাইন নির্মাণ করা হয়েছে

রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলকে চীনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সঙ্গে যুক্ত করেছে পাইপলাইন চীনে প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহের লক্ষ্যে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন গ্যাজপ্রমকে পাইপলাইন নির্মাণের নির্দেশ দেন ২০১৪ সালে রাশিয়া চীনের মধ্যে ৩০ বছরের জন্য পাইপলাইন নিয়ে চুক্তি হয় এর মধ্য দিয়ে দুই দেশের মধ্যে পাইপলাইনের মাধ্যমে প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহ করা যাবে পাইন বন, সাবজিরো সাইবেরিয়া নদী, জলাভূমি এবং পাথর-বালুর উঁচু-নিচু পথ দিয়ে পাইপলাইন তৈরি করা হয়েছে

প্রাকৃতিক গ্যাস জ্বালানি তেল উত্তোলনে দীর্ঘদিন ধরে অন্যতম শীর্ষের কাতারে আছে রাশিয়া অন্যদিকে দ্রুত বর্ধনশীল চীনের অর্থনীতির কারণে দেশটির জ্বালানি চাহিদা উত্তরোত্তর বাড়তে থাকে কিন্তু মার্কিন নিষেধাজ্ঞার ফলে দেশটিতে জ্বালানি সরবরাহকারী ইরান, ভেনিজুয়েলাসহ অনেক দেশের রফতানি স্থবির অবস্থায় রয়েছে অবস্থায় রাশিয়ার কাছ থেকে জ্বালানি আমদানি বাড়াচ্ছে চীন এছাড়া কয়লানির্ভরতা কমিয়ে গ্যাসনির্ভরতা বাড়াতে রাশিয়াকে জ্বালানি সহযোগী হিসেবে পেতে চায় দেশটি অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক ক্রমেই খারাপ হওয়ায় চীনের দিকে ঝুঁকছে রাশিয়া তাছাড়া ১৯৬০ দশক থেকে ইউরোপের বাজারে জ্বালানি রফতানিতে আধিপত্য ছিল রাশিয়ার কিন্তু অঞ্চলে এখন যুক্তরাষ্ট্রের সরবরাহ বেড়েছে এতে অঞ্চলে রাশিয়ার জ্বালানি তেল গ্যাসের ক্রেতা কমেছে এসব কারণেই জ্বালানি সরবরাহের মধ্য দিয়ে দুই দেশের সম্পর্ককে নতুন দিগন্তে নিয়ে যেতে কাজ করবে পাওয়ার অব সাইবেরিয়া পাইপলাইন

পাইপলাইন দিয়ে আগামী বছর থেকে ৫০০ কোটি কিউবিক মিটার গ্যাস সরবরাহ করবে রাশিয়া আর ২০২৩ সালের পাইপলাইন পূর্ণ সক্ষমতায় এলে তখন সরবরাহ আরো বেড়ে যাবে যে কারণে ২০২৫ সালের মধ্যে চীনের বাজারে দেশটির গ্যাস সরবরাহ হাজার ৮০০ কোটি কিউবিক মিটার নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে রাশিয়ার এছাড়া চীনে শীত মৌসুমে এলএনজির চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় সময়ও গ্যাসের সরবরাহ বাড়িয়ে দেবে রাশিয়া সব মিলিয়ে পাইপলাইন দিয়ে চীনের গ্যাসের মোট চাহিদার দশমিক শতাংশ সরবরাহ করা হবে

চীনের অভ্যন্তরীণ বাজারে গ্যাস সরবরাহকারী ব্যবসায়ীরা বলছেন, শীত মৌসুমে উত্তর-পূর্বাঞ্চলে গ্যাস সরবরাহ অনেক কঠিন হয় যে কারণে পাইপলাইন তাদের ওপর চাপ কমাতে সাহায্য করবে

এদিকে পাইপলাইনে আমদানি বাড়িয়ে সমুদ্রপথে জ্বালানি আমদানি কমিয়ে দিচ্ছে চীন বিশেষ করে ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় ভারত মহাসাগর প্রশান্ত মহাসাগরের মধ্যে অবস্থিত মালাক্কা প্রণালি ব্যবহার করে জ্বালানি আমদানি কমিয়ে আনছে চীন গত বছর দেশটির রাষ্ট্রীয় জ্বালানি তেল গ্যাস কোম্পানি হাজার ২৮৯ কোটি কিউবিক মিটার প্রাকৃতিক গ্যাস আমদানি করেছে এর মধ্যে হাজার ৮৪০ কোটি কিউবিক মিটার বা ৬৬ শতাংশ মধ্য এশিয়ার দেশগুলো থেকে পাইপলাইনের মাধ্যমে আনা হয়েছে এর মধ্যে ৩২৯ কোটি কিউবিক মিটার মিয়ানমার থেকে আমদানি করা হয়েছে আর ২৯ শতাংশ বা হাজার ১২০ কোটি কিউবিক মিটার এলএনজি গ্যাস সমুদ্রপথে আমদানি করেছে দেশটি

এদিকে ডিসেম্বরে গ্যাস সরবরাহের লক্ষ্যে প্রকৌশলীরা রাশিয়া চীনের মধ্যকার আমুর নদীতে টানেল নির্মাণ করেছেন এটি চীনের উত্তর-পূর্ব হেইহি এলাকার সঙ্গে রাশিয়ার ব্লাগোভেসেস্ককে সংযুক্ত করবে ডিসেম্বরে প্রকল্প উদ্বোধন হলে রাশিয়া চীনের মধ্যকার দীর্ঘ প্রতীক্ষিত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নতুন যুগে প্রবেশ করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে  

 

সূত্র: দ্য হিন্দু, অয়েলপ্রাইসডটকম, এসঅ্যান্ডপি গ্লোবাল প্ল্যান্টস

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন