মঙ্গলবার | জুলাই ০৭, ২০২০ | ২২ আষাঢ় ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

লিবরা কখনই আলোর মুখ দেখবে না—সিইও, জেপি মরগান

বণিক বার্তা ডেস্ক

ফেসবুকের ডিজিটাল ক্রিপ্টোকারেন্সি লিবরা নিয়ে সংকট যখন ক্রমেই ঘনীভূত হয়ে আসছে, তখনই ইস্যুতে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন মার্কিন বহুজাতিক বিনিয়োগ ব্যাংক জেপি মরগানের সিইও জেমি ডিমন। তার মতে, ফেসবুকের উদ্যোগ কখনই আলোর মুখ দেখবে না। বিশ্বের প্রভাবশালী আর্থিক প্রতিষ্ঠান জেপি মরগান প্রধানের মন্তব্য লিবরার ভবিষ্যৎ পথচলা আরো কঠিন করে তুলতে পারে। খবর সিএনএন রয়টার্স।

ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্সের আয়োজনে অংশ নিয়ে জেমি ডিমন বলেন, ‘লিবরা একটি সংযত স্মার্ট উদ্যোগ। তবে এটির ভবিষ্যৎ নিয়ে সংশয় রয়েছে। আমার মনে হয় না, লিবরা কখনো আলোর মুখ দেখবে।চলতি বছরের শুরুর দিকে জেপি মরগানও ডিজিটাল মুদ্রার দিকে ঝুঁকেছিল। যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সারির ব্যাংকগুলোর মধ্যে জেপি মরগান প্রথম এমন উদ্যোগ নিয়েছিল। উদ্যোগের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত ছিলেন জেমি ডিমন। ফলে ক্রিপ্টোকারেন্সির চ্যালেঞ্জগুলো তিনি খুব কাছ থেকে উপলব্ধি করেছেন।

বিষয়ে তিনি বলেন, জেপি মরগানের ক্রিপ্টোকারেন্সির পেছনে ডলার বড় শক্তি জুগিয়েছে। কারণে এটা অনেকটাই স্থিতিশীল ছিল। এর পরও আমরা (জেপি মরগান)

খুব একটা সফলতা দেখাতে পারিনি। লিবরা চালুর ক্ষেত্রে গ্রাহকদের তথ্য লেনদেনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং আর্থিক খাতে অনিশ্চয়তা দূর করা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে কাজ করবে।

লিবরার ওপর কিছুদিন ধরে একের পর এক আঘাত আসছে। শুরুতে মার্কিন আইনপ্রণেতা আর্থিক খাতসংশ্লিষ্টরা লিবরার তীব্র বিরোধিতা করেন। পরে তালিকায় যুক্ত হয় ফ্রান্স, জার্মানিসহ ইউরোপের দেশগুলো। একে একে লিবরা বিরোধিতায় যুক্ত হয় মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ বিশ্বের সেরা সাত অর্থনীতির জোট জি৭। সবারই দাবি, যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিতের আগে লিবরা চালু করার কোনো সুযোগ নেই। অন্যদিকে ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ জানিয়েছেন, যেকোনো মূল্যে ২০২০ সালে ডিজিটাল ক্রিপ্টোকারেন্সি লিবরা চালু করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন