শনিবার | ডিসেম্বর ০৭, ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

খেলা

নেতৃত্ব হারালেন সরফরাজ

বিশ্বকাপের পর বেশ রদবদলের মধ্য দিয়ে গেছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল প্রধান নির্বাচক থেকে কোচসহ অনেকগুলো জায়গা থেকে এসেছে পরিবর্তন শীর্ষ দুটি পদে আসীন হন সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক কিন্তু এসব ডামাডোলের মাঝেও টিকে গিয়েছিলেন অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বিশ্বকাপে শরীরী ভাষা, অধিনায়কত্ব পারফরম্যান্স সবদিক থেকেই ব্যর্থ ছিলেন সরফরাজ যে কারণে পড়েছিলেন বেশ সমালোচনার মুখেও কিন্তু তার পরও তার অধিনায়কত্বে আস্থা রেখেছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) কিন্তু খর্বশক্তির শ্রীলংকার বিপক্ষে সদ্যই ঘরের মাঠে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর ফের সমালোচনার কেন্দ্রে চলে আসেন সরফরাজ যার মূল্য দিতে হলো তাকে টেস্ট টি২০ দলের অধিনায়কত্ব হারালেন তিনি কেবল তা- নয়, বাদ পড়তে হলো দল থেকেও বোর্ড থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে সরফরাজকে সরিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে

টেস্ট টি২০ থেকে বাদ পড়া সরফরাজের ওয়ানডে দলে অধিনায়কত্বের সঙ্গে জায়গা ধরে রাখাও অনিশ্চিত আগামী জুলাইয়ে পাকিস্তানের কোনো ওয়ানডে সিরিজ নেই তাই সে ফরম্যাটের অধিনায়ক বাছাইয়ের জন্য সময় পাচ্ছে পিসিবি তবে সে পদে সরফরাজের টিকে থাকা অসম্ভব বলেই মনে করা হচ্ছে

তবে টেস্ট টি২০-তে নতুন অধিনায়ক খুঁজে নিতে খুব বেশি সময় নেয়নি পিসিবি তারা টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছে সিনিয়র ব্যাটসম্যান আজহার আলীকে আর টি২০-তে দলকে নেতৃত্ব দেবেন দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া বাবর আজম

সরফরাজকে বাদ দেয়ার কারণ হিসেবে পিসিবি একেবারে সরাসরি তার পারফরম্যান্সকেই দায়ী করেছে তাকে বাদ দেয়ার ব্যাপারে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এহসান মানি বলেন, সরফরাজকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়াটা কঠিন ছিল যে কিনা অধিনায়ক খেলোয়াড় হিসেবে ভালো করেছে কিন্তু সে তার ফর্ম আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছে সময় তাকে বাদ দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ দেয়ার কথাও বলেছেন মানি

দল থেকে বাদ পড়ার প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সরফরাজ বলেন, সর্বোচ্চ পর্যায়ে পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দেয়া ছিল অনেক বড় সম্মানের বিষয় যাত্রায় যেসব সতীর্থ, কোচ নির্বাচকরা আমাকে সাহায্য করেছেন তাদের ধন্যবাদ দিতে চাই আজহার আলী, বাবর আজম পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য আমার শুভকামনা থাকবে আমি আশা করি, তারা আরো শক্তিশালী হবে

সরফরাজের নেতৃত্বে পাকিস্তান ১৩ টেস্টে হেরেছে আটটিতে, জিতেছে চারটিতে এবং বাকি টেস্টটি ড্র ২০১৭ সালে তার নেতৃত্বেই ইংল্যান্ডের মাটিতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ের সাফল্য দেখায় পাকিস্তান

ক্রিকইনফো বিবিসি

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন