শুক্রবার | ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সম্পাদকীয়

অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে এসএমইর ভূমিকা

লীনা দিলরুবা

ব্যবসাকে খুব সহজ বিষয় মনে করার কারণ নেই ব্যবসা করতে গেলে সবচেয়ে বড় অনুষঙ্গ এর ঝুঁকির বিষয়টি বিনিয়োগ করলে লাভ-ক্ষতি দুই- হতে পারে ভাবনা মাথায় রেখে যে উদ্যোক্তা কাজে নামতে পারেন, তারই উচিত বিনিয়োগে এগিয়ে আসা

ব্যবসার রয়েছে নানা ধরন কেউ পণ্য বেচাকেনা করে, কেউ আমদানি-রফতানি করে কারো ব্যবসা জড়িত থাকে পণ্য উৎপাদনের সঙ্গে কেউ করে সেবাধর্মী ব্যবসা বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে উল্লিখিত যেকোনো কিছুর সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিকে আমরা উদ্যোক্তা বলতে পারি একজন সফল উদ্যোক্তা হতে হলে তার থাকতে হবে ঝুঁকি নেয়ার সাহস এবং প্রতিষ্ঠানের সামনের চেয়ারে বসে পুরো উদ্যোগটিকে পরিচালনা করার মতো দক্ষতা প্রত্যয় 

যিনি উদ্যোক্তা তিনিই যে নতুন উদ্যোগের পরিকল্পনাপ্রণেতা হবেন, তা না- হতে পারে কিন্তু উদ্যোক্তাকেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের রূপকার হতে হবে

যেকোনো ব্যবসা করতে গেলে বিনিয়োগের বিষয়টির সঠিক কর্মপরিকল্পনা থাকা দরকার ব্যবসা মানে শুধুই পুঁজি নয়, ব্যবসা একটি উদ্যোগও এখানে পুঁজির পাশাপাশি আপনি একটি ব্যবসায়িক পরিকল্পনাকেও বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছেন সুতরাং আপনার কষ্টার্জিত পুঁজি কত বছরে লাভসহ উঠে আসবে, সে ধারণা মাথায় রেখে যেমন আপনি কাজ করবেন, পাশাপাশি যে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন, সেটি কতটা লাগসই এবং যুগোপযোগী, সেটিও আপনাকে মাথায় রাখতে হবে বর্তমানে যেকোনো ব্যবসার এটি একটি অন্যতম প্রধান ঝুঁকি প্রযুক্তিনির্ভর ব্যবসাগুলোয় প্রযুক্তির ঘন ঘন বাঁক পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে ব্যবসার গতি-প্রকৃতিও বদলে যায় আবার নানা পলিসিসংক্রান্ত বিষয়গুলোর কারণেও বাড়তে বা কমতে পারে ঝুঁকির মাত্রা

এসএমই বা ক্ষুদ্র মাঝারি ব্যবসার মাধ্যমে কোনো নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করে আপনি শুরু করতে পারেন আপনার স্বপ্নের প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম এসব ক্ষুদ্র ব্যবসার গুরুত্বপূর্ণ দিক হচ্ছে, এখানে একদিকে যেমন কম উৎপাদন সময়কালের সুবিধা গ্রহণ করা যায়, অন্যদিকে শ্রমঘন শিল্প হওয়ায় কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অবদান রাখা যায়

তবে যে ব্যবসা উদ্যোগই আপনি গ্রহণ করেন না কেন, প্রথমে নিশ্চিত হতে হবে সেটি দেশের প্রচলিত আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক কিনা বিভিন্ন ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কিছু ব্যবসাকে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে সুতরাং ব্যবসা উদ্যোগ গ্রহণ করার আগে প্রথমে খোঁজখবর করে নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে আপনি যে উদ্যোগটি গ্রহণ করতে যাচ্ছেন, তা নিষিদ্ধ ব্যবসার তালিকাবহির্ভূত কিনা

ব্যবসা করতে হলে প্রথমেই আপনাকে ব্যবসার ট্রেড লাইসেন্স করতে হবে, থাকতে হবে টিআইএন যে ঠিকানায় ব্যবসা করছেন, সেটি যদি আপনার নিজের মালিকানাধীন হয়, তবে জমির মালিকানাসংক্রান্ত কাগজপত্র ঠিকঠাক রাখতে হবে আর যদি প্রতিষ্ঠানটি ভাড়ায় চলে, তবে বাড়ির মালিকের সঙ্গে নির্দিষ্ট সময়সীমা ঠিক রেখে ভাড়াটিয়া চুক্তি সম্পাদন করতে হবে এরপর প্রতিষ্ঠানের নামে খুলতে হবে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট

মনে রাখতে হবে আপনিই আপনার ব্যবসার মূল কারিগর যত দক্ষ জনবল নিয়োগ করেন না কেন, বিনিয়োগ সিদ্ধান্তের দ্বারা আপনার হাত দিয়ে যেমন ব্যবসার শুরু হচ্ছে, কোনো সমস্যা হলে আপনার মাধ্যমেই হবে এর শেষ তাই প্রতিষ্ঠানের সব তথ্য পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে জানা থাকা আপনার জন্য জরুরি

মালিকই ব্যবসার চালক তিনি দলনেতা সুতরাং নেতাকে সবসময় মাঠে সবার সামনে দাঁড়িয়ে নেতৃত্ব দেয়ার সাহস রাখতে হবে গাড়ির চালকের মতো উদ্যোক্তাকেই ড্রাইভিং সিটে বসতে হবে এবং যতবার ব্যবসার পথ বদল হবে ততবার সেই পরিবর্তিত পথে এগিয়ে চলার দক্ষতা প্রমাণ করতে হবে সবসময় যে ব্যবসার সবকিছু একই গতিতে চলে, সেটি মনে করার কোনো কারণ নেই মনে রাখতে হবে ব্যবসা এগোবে, পেছাবে এবং অনেক ক্ষেত্রে থেমেও যেতে পারে তবে যখন যে পরিস্থিতি আসুক না কেন, সেটিকে দৃঢ় মনোবল বজায় রেখে মোকাবেলা করাই বুদ্ধিমান উদ্যোক্তার কাজ

প্রথমেই ব্যবসার ঝুঁকির কথা বলেছিলাম যেসব ঝুঁকি মাথায় রেখে আপনি ব্যবসা শুরু করেছিলেন, দেখা গেল কাজ শুরু করার পর প্রায়োগিক ক্ষেত্রে ঝুঁকির ধরন বদলে গেল হয়তো যে বিষয়টিকে শুরুতে মাথায়ই রাখেননি, ব্যবসা পরিচালনা করার সময় সেটিই বড় সমস্যা হয়ে দেখা দিল সময় দিশেহারা না হয়ে পরিস্থিতি অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করলে বর্তমান সমস্যাটি থেকে যেমন আপনি বেরিয়ে আসতে পারবেন, তেমনি ধরনের সমস্যা মোকাবেলার আত্মবিশ্বাসের কারণে ভবিষ্যতে নতুন ধরনের সমস্যা তৈরি হলে তা থেকে বেরিয়ে আসার ক্ষেত্রেও আপনি বিচক্ষণতার পরিচয় দিতে পারবেন

আপনি যদি হন একজন নতুন উদ্যোক্তা, এসএমই ব্যবসা করতে আগ্রহী হয়ে খাতে বিনিয়োগ করতে চান আপনার কষ্টের টাকা, তবে শুধু অর্থ বিনিয়োগ করেই আপনার কর্মকাণ্ড সীমাবদ্ধ থাকলে এখন আর চলছে না বর্তমান সময়ে ব্যবসা করতে গেলে এর সংজ্ঞা, পলিসিসংক্রান্ত বিষয়াদি সম্পর্কে ধারণা থাকা জরুরি হয়ে পড়েছে মনে রাখতে হবে এসএমইর আওতায় যে ব্যবসাই আপনি করেন না কেন, ব্যবসার নীতিসংক্রান্ত বিষয়াবলি মাথায় রেখে আপনাকে ঠিক করতে হবে ব্যবসার পরিধি ক্ষুদ্র মাঝারি খাতের শুধু নতুন উদ্যোক্তারা নন, যারা দীর্ঘদিন ধরে ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালিয়ে আসছেন, তাদের জন্যও বিষয়গুলো গুরুত্বপূর্ণ শুধুু তাই নয়, নীতিসংক্রান্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে জানা এবং নিজের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানকে এসবের আলোকে গড়ে নিতে পারলে আপনার প্রতিষ্ঠানটি সরকারের নানা প্রণোদনায় সুবিধা প্রাপ্তি, বিভিন্ন ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক প্রদেয় পুনঃঅর্থায়নের আওতায় স্বল্প সুদে এসএমই ঋণ প্রাপ্তি, বিভিন্ন মেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ প্রাপ্তিসহ নানাভাবে যোগ্য হয়ে উঠবে 

বর্তমানে বাংলাদেশের প্রাতিষ্ঠানিক শিল্পপ্রতিষ্ঠানের প্রায় ৯৯ শতাংশ যেখানে এসএমই খাতের অন্তর্ভুক্ত, তখন বলার অপেক্ষা রাখে না খাত জাতীয় অর্থনীতিতে কতটা গুরুত্বপূর্ণ ক্ষুদ্র শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর আওতা বর্ধিত করার উদ্দেশ্যে জাতীয় শিল্পনীতি ২০১৬-এর আলোকে শিল্প সেবা খাতের কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র মাঝারি শিল্প এবং ট্রেডিং খাতের মাইক্রো ক্ষুদ্র উদ্যোগের সংজ্ঞা এবং ঋণসীমা পুনর্নির্ধারণ করে খাতকে এখন সিএমএসএমইতে রূপান্তর করা হয়েছে এসএমই মানে ক্ষুদ্র মাঝারি শিল্পপ্রতিষ্ঠান এখন এর সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে কটেজ, মাইক্রো, স্মল, মিডিয়াম এন্টারপ্রাইজগুলোকেও, সব মিলিয়ে সিএমএসএমই 

বর্তমানে খাতের মাধ্যমেই অর্জিত হচ্ছে মোট দেশজ উৎপাদনের ২৫ শতাংশ কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রেও সিএমএসএমই খাত অনেক এগিয়ে আছে দেশের মোট কর্মসংস্থানের ৪০ শতাংশ খাতেই নিয়োজিত অন্যদিকে শিল্প কর্মসংস্থানের ৮০ শতাংশে অবদান রাখছে সিএমএসএমই খাত দেশের জনসংখ্যাকে কাজে লাগানোর জন্য কুটির, ক্ষুদ্র মাঝারি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো যথেষ্ট উপকারী আগেই বলা হয়েছে, এটি শ্রমঘন এবং এর উৎপাদন সময়কাল কম আর তাই খাতকে জাতীয় আয় বৃদ্ধিতে এবং অধিক কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে উপযুক্তভাবে ব্যবহার করা যাচ্ছে

সংজ্ঞা: এবার তাহলে দেখে নিন কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র মাঝারি শিল্পের সংজ্ঞার আলোকে ব্যবসাগুলো কেমন: এসএমই ভবিষ্যৎ ব্যবসার ক্ষেত্র এসএমই ব্যবসাই পারবে দেশের অর্থনীতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে 

 

লীনা দিলরুবা: ভাইস প্রেসিডেন্ট এসএমই প্রধান, ন্যাশনাল ফিন্যান্স লিমিটেড

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন