শনিবার | নভেম্বর ২৩, ২০১৯ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

শেয়ারবাজার

বাতিল হচ্ছে না আশুগঞ্জ পাওয়ারের বন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিদ্যুৎ খাতের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেডের সেকেন্ডারি বাজারে লেনদেনযোগ্য বন্ডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) ক্ষেত্রে পাবলিক ইস্যু রুলস ২০১৫-এর বেশকিছু বিধির শর্ত পরিপালনের বাধ্যবাধকতা থেকে অব্যাহতি দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) তাছাড়া বন্ডটির অনুত্তোলিত অংশের চাঁদা গ্রহণের (সাবস্ক্রিপশন) তারিখ এ বছরের ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। গতকাল বিএসইসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ৭০১তম কমিশন সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আশুগঞ্জ পাওয়ারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বন্ড মার্কেট উন্নয়ন ও বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সুরক্ষায় সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স ১৯৬৯-এর সেকশন ২সিসিতে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে কোম্পানিটির ১০০ কোটি টাকার বন্ড ইস্যুর জন্য বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (পাবলিক ইস্যু) রুলস ২০১৫-এর বিধি ৩(৩)(বি), বিধি ৬(১) এবং বিধি ৭(২)-এর বিধান পরিপালনের বাধ্যবাধকতা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

পাবলিক ইস্যু রুলসের ৩(৩)(বি) বিধি অনুসারে ফিক্সড প্রাইস পদ্ধতির আইপিওর ক্ষেত্রে ন্যূনতম ৩৫ শতাংশ সিকিউরিটিজ অবলেখন করতে হবে

বিধি ৬(১) অনুসারে সম্মিলিতভাবে কোনো পাবলিক ইস্যু ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত আন্ডার সাবস্ক্রিপশন হলে, যে পরিমাণ সিকিউরিটিজ আন্ডার সাবস্ক্রাইব হয়েছে সেই পরিমাণ সিকিউরিটিজ আন্ডাররাইটারকে নিতে হবে। তাছাড়া সম্মিলিতভাবে ৩৫ শতাংশের বেশি আন্ডার সাবস্ক্রিপশন হলে পাবলিক ইস্যু বাতিল হয়ে যাবে।

আর বিধি ৭(২)-এ বলা হয়েছে, সংক্ষেপিত প্রসপেক্টাস প্রকাশের পর থেকে ২৫ দিনের মধ্যে সাধারণ জনগণের জন্য সাবস্ক্রিপশন শুরু করতে হবে এবং সংক্ষেপিত প্রসপেক্টাস প্রকাশের পর ২৫ কার্যদিবস পর্যন্ত এ সাবস্ক্রিপশন চলবে। আইপিওর সম্মতিপত্রে (কনসেন্ট লেটার) উল্লেখিত নিয়মানুসারে সাবস্ক্রিপশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

প্রসঙ্গত, এ বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত আশুগঞ্জ পাওয়ারের সেকেন্ডারি মার্কেটে লেনদেনযোগ্য বন্ডের আইপিও সাবস্ক্রিপশন অনুষ্ঠিত হয়। সাবস্ক্রিপশন শেষে দেখা যায়, কোম্পানিটির বন্ডে মাত্র ৩৫ শতাংশ আবেদন জমা পড়েছে। এর ফলে নিয়মানুসারে কোম্পানিটির বন্ড বাতিল হয়ে যাওয়ার কথা। তবে কোম্পানিটির পক্ষ থেকে বন্ডের সাবস্ক্রিপশনের সময়সীমা বাড়ানোর জন্য কমিশনের কাছে আবেদন করা হয়।

প্র্যাকটিসিং চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টরা তালিকাভুক্ত কোম্পানির নিরীক্ষা করতে পারবে না: বিএসইসির প্যানেলভুক্ত নিরীক্ষা ফার্মগুলোর অংশীদার (পার্টনার) ব্যতীত কোনো চর্চারত (প্র্যাকটিসিং) চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস তালিকাভুক্ত এবং প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) আবেদনকারী কোম্পানি আর্থিক প্রতিবেদন নিরীক্ষা করতে পারবে না। গতকাল বিএসইসির ৭০১তম কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বিএসইসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কমিশন প্যানেল অব অডিটরসের বিদ্যমান তালিকা অডিট ফার্ম ও যথাযথ প্রক্রিয়ার এ প্যানেলে অন্তর্ভুক্ত ফার্মওয়ারি অংশীদার চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টদের নামসহ প্রকাশ করবে। প্যানেল অব অডিটরসের তালিকায় থাকা ফার্মওয়ারি অংশীদাররা ছাড়া অন্য কোনো চর্চারত চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস নিরীক্ষক হিসেবে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ও আইপিওতে আবেদন করা কোম্পানির নিরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন