বৃহস্পতিবার | নভেম্বর ২১, ২০১৯ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দেশের খবর

সিরাজগঞ্জে বিদ্যালয় মাঠ দখল করে মাষকলাই চাষ

বণিক বার্তা প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জ

 সিরাজগঞ্জের বেলকুচির শতবছরের ঐতিহ্যবাহী দৌলতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে মাষকলাই বুনেছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল পাঁচ বিঘা আয়তনের মাঠটিতে কলাই বুনে চারদিকে জাল দিয়ে ঘেরা হয়েছে এতে বিদ্যালয়টির পাশাপাশি পাশের ডিগ্রি কলেজ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েক হাজার শিক্ষার্থীর অ্যাসেম্বলি, খেলাধুলা বন্ধ হয়ে গেছে কারণ তিনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের একটিই মাঠ

জানা গেছে, বিদ্যালয় মাঠ চাষ করে কলাই বপন করেছেন স্থানীয় ছাত্রলীগ যুবলীগ নেতা ওই যুবলীগ নেতা বিষয়টি স্বীকারও করেছেন অভিযোগ পেয়ে মাঠটি দখলমুক্ত করতে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়েছে জেলা শিক্ষা অফিস

বিদ্যালয়ের শিক্ষক পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১৯০৩ সালে দৌলতপুরের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন স্থানীয় এক হিতৈষী ব্যক্তি পরে সেই স্থানে আট বিঘা জমি মিলিয়ে ১৯১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় দৌলতপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ডিগ্রি কলেজ এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বর্তমানে প্রায় সাড়ে তিন হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে তিনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য একটিই মাঠ প্রায় পাঁচ বিঘা আয়তনের মাঠটি সম্প্রতি চাষ করে মাষকলাই বুনেছেন স্থানীয় যুবলীগ নেতা শাহীন রেজা, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল ইসলাম সদস্য দীবাকর মাঠজুড়ে দেয়া হয়েছে জালের বেড়া

কয়েকজন শিক্ষার্থী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, স্কুল মাঠ এভাবে দখল হয়ে যাবে, এটা আমরা কখনো কল্পনাও করিনি! খেলার মাঠে ফসল চাষ হচ্ছে, অথচ কেউ কিছু বলছে না তারা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না

ব্যাপারে জানতে চাইলে দৌলতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আলতাফ হোসেন বলেন, মাঠ থাকে খেলার জন্য, আবাদের জন্য নয় তবে দৌলতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠটি এখন আবাদের মাঠে পরিণত হয়েছে তারা প্রভাব খাটিয়ে মাঠটি দখল করায় স্কুলের অ্যাসেম্বলিসহ খেলাধুলা বন্ধ থাকার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের যাতায়াতেও সমস্যা হচ্ছে আমরা দ্রুত অবস্থার উত্তরণ চাই

এদিকে দৌলতপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বেলকুচি পৌর মেয়র আশানুর বিশ্বাস প্রথমে বিষয়ে কিছুই জানেন না উল্লেখ করলেও পরে বলেন, আমি নিজেও অবাক হয়েছি স্কুলের প্রধান শিক্ষক আমাকেও তারা কেউ কিছু জানায়নি তিনি ক্ষুব্ধ স্বরে বলেন, একেবারে যেন মগের মুল্লুক! দীর্ঘদিন ধরেই ওরা স্কুল-কলেজে প্রভাব বিস্তার করে বিভিন্ন অনিয়ম করে চলেছে

যুবলীগ নেতা শাহীন রেজাকে ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে বিষয়টি তিনি স্বীকার করেন তবে তার দাবি, উঁচু-নিচু মাঠটি সমান করতেই চাষ করে আপাতত মাষকলাই লাগানো হয়েছে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা শুরু হওয়ায় আমরা মাঠ পরিষ্কার করতে শুরু করেছি মাষকলাই এখন গরু দিয়ে খাওয়ানো হচ্ছে

বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ শফীউল্লাহ বলেন, স্কুলের মাঠ স্কুলেরই থাকবে এখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অ্যাসেম্বলিসহ খেলাধুলা হবে যারা মাঠ দখল করে মাষকলাই আবাদ করেছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন