বৃহস্পতিবার | নভেম্বর ২১, ২০১৯ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

মজুরি বৃদ্ধির দাবি

শ্রমিক ইউনিয়নের সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছে জিএম

বণিক বার্তা ডেস্ক

জেনারেল মোটরসের (জিএম) সঙ্গে একটিপরীক্ষামূলক চুক্তির ঘোষণা দিয়েছেন ধর্মঘটরত ইউনাইটেড অটো ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের (ইউএডব্লিউ) শ্রমিকরা। মজুরি বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দাবিতে গত মাস থেকে ধর্মঘট করে আসছিলেন ইউএডব্লিউর শ্রমিকরা। অন্যদিকে কয়েক সপ্তাহ ধরে নতুন চুক্তির জন্য আলোচনা চালিয়ে আসছিল দুই পক্ষ। খবর বিবিসি।

গত মাসে জিএমের সঙ্গে চার বছর মেয়াদি চুক্তি শেষ হওয়ার পর ইউএডব্লিউর শ্রমিকরা নতুন চুক্তির দাবিতে ধর্মঘট শুরু করেন। কিন্তু ইউনিয়নের বিভিন্ন শর্তে সম্মত না হতে পারায় নতুন চুক্তিতে গড়িমসি শুরু করে জিএম কর্তৃপক্ষ। কিন্তু শ্রমিকরা এক দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে সবচেয়ে দীর্ঘ ধর্মঘট করায় অবশেষে নতুন চুক্তিতে রাজি হলো জিএম। সম্ভাব্য চুক্তির মাধ্যমে প্রায় ৫০ হাজার শ্রমিক চার বছর মেয়াদি নতুন চুক্তির আওতায় আসবেন। নতুন চুক্তির সম্ভাবনা তৈরি হওয়ায় ধর্মঘটের অবসান ঘটবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শ্রমিকদের দীর্ঘ এক মাস ধর্মঘটে কারখানা বন্ধ থাকায় জিএমের দৈনিক ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৯ কোটি ডলার। প্রসঙ্গত, বিভিন্ন দাবির মধ্যে সাপ্তাহিক মজুরি ২৫০ ডলার নির্ধারণ অন্যতম।

জিএম ও ইউএডব্লিউর মধ্যে হতে যাওয়া চুক্তির বিষয়ে এখনো বিস্তারিত জানা যায়নি। জিএমের প্রস্তাব ইউএডব্লিউ ও ইউনিয়নের সদস্যদের কর্তৃক গৃহীত হওয়ার ওপর নির্ভর করছে চুক্তি চূড়ান্ত হওয়ার বিষয়টি। সম্ভাব্য চুক্তি বিষয়ে এখনো বিস্তারিত কিছু জানা না গেলেও চুক্তিতে মজুরি, স্বাস্থ্য, লভ্যাংশ ভাগাভাগি ও চাকরির নিশ্চয়তার বিষয়গুলো থাকছে বলে জানা গেছে।

এদিকে ওহাইও ও মিশিগানে নিজেদের গাড়ি অ্যাসেম্বলিং কারখানা বন্ধের পরিকল্পনা করছিল জিএম। গাড়ি বিক্রিতে মন্দা বিরাজ করায় ওই দুই অঞ্চলে কারখানা বন্ধ জরুরি হয়ে পড়ছিল বলে জানিয়েছে জিএম। শ্রমিকদের সাম্প্রতিক ধর্মঘটে কারখানাগুলো বন্ধ না করারও দাবি ওঠেছে।

জিএমের সঙ্গে নিজেদের আলোচনা প্রসঙ্গে ইউএডব্লিউর ভাইস প্রেসিডেন্ট টেরি ডিটেস বলেন, জিএমের সঙ্গে আমাদের আলোচনার প্রধানতম অগ্রাধিকার হলো, একটি শক্তিশালী ও ন্যায্য চুক্তি নিশ্চিত করা, যাতে আমাদের সদস্যদের স্বার্থ সংরক্ষিত হবে। তিনি বলেন, ইউএডব্লিউ ও জিএমের কর্মকর্তাদের মধ্যে চূড়ান্ত চুক্তি সই হওয়ার আগে চুক্তি সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু আমরা প্রকাশ করতে চাই না। এতে আমাদের সদস্যদের স্বার্থহানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জিএম কর্তৃপক্ষ সম্ভাব্য চুক্তির কথা স্বীকার করলেও চুক্তি সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু বলতে রাজি হয়নি।

এদিকে সম্ভাব্য চুক্তির ঘোষণায় জিএমের শেয়ারদর প্রায় ২ শতাংশ বেড়েছে। তবে শ্রমিকরা কাজে ফেরার আগে আনুষ্ঠানিকভাবে ধর্মঘট পরিসমাপ্তির বিষয়টি ইউএডব্লিউকে ভোটের মাধ্যমে নিশ্চিত করতে হবে। উল্লেখ্য, ২০০৭ সালের পর জিএমের শ্রমিকদের এটিই সবচেয়ে দীর্ঘ ধর্মঘট। তখন জিএমের শ্রমিকরা দুদিনের জন্য ধর্মঘট করেছিলেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন