সোমবার | নভেম্বর ১৮, ২০১৯ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

টকিজ

মৃত পাওয়া গেল দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় পপস্টারকে

ফিচার ডেস্ক

দক্ষিণ কোরিয়ার পপস্টার সুলি তুমুল জনপ্রিয় এফ(এক্স) ব্যান্ড ছেড়ে দেন, হাজির হন একক শিল্পী হিসেবে...সোমবার তার বাড়িতে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে। পুলিশ বলছে মৃত্যুর কারণঅবসাদ’...

দক্ষিণ কোরিয়ার শীর্ষস্থানীয় এফ(এক্স) পপ ব্যান্ডের সাবেক সদস্য চই জিন-রিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে গত সোমবার। চই জিন-রি অধিক পরিচিত তার মঞ্চনাম সুলির জন্য। ২৫ বছর বয়সী পপ তারকা সাইবার হেনস্তার বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন। পুলিশের ভাষ্যমতে: সুলিকে রাজধানী সিউলের সিওংনামের বাড়িতে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে।

আগের দিন রাতে সুলিকে ফোনে না পেয়ে খোঁজ নেয়ার জন্য বাড়িতে যান তার ম্যানেজারপুলিশ ভাষ্যে উল্লেখ করা হয়েছে। তাতে আরো বলা হয়েছে সুলি মারাত্মক রকম অবসাদে ভুগছিলেন, কিন্তু বিস্তারিত আর কিছু প্রকাশ করা হয়নি।

২০০৯ সালে সুলি পাঁচ সদস্যের এফ(এক্স) ব্যান্ডে যোগ দেন। দ্রুতই দলটি দক্ষিণ কোরিয়ায় সবচেয়ে জনপ্রিয় মেয়েদের ব্যান্ডে পরিণত হয়। দুনিয়াজুড়ে কোরিয়ার কে-পপ উন্মাদনাকে দলটি আরো বাড়িয়ে তোলে। ২০১৫ সালে সুলি এফ(এক্স) দল ছেড়ে দিয়ে একক সংগীত শিল্পী অভিনেত্রী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

সুলি প্রথম পাদপ্রদীপের আলোয় আসেন ২০০৫ সালে, এসবিএসের ড্রামা ব্যালাড অব সিউদংয়ে রাজকন্যা সিউনহার ভূমিকায় অভিনয় করে, তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১১। ২০০৯ সালে সুলির এফ(এক্স) ব্যান্ডের চার সদস্য ভিক্টোরিয়া, অ্যামবার, লুনা আর ক্রিস্টালের সঙ্গে সংগীতশিল্পী হিসেবে অভিষেক ঘটে। নারী ব্যান্ডের সদস্য থাকাকালীন বুসানে জন্ম নেয়া তারকা সংগীতশিল্পী হিসেবে ঈর্ষণীয় সাফল্য পান। তার কিছু গান কে-পপের সেরা গান হিসেবে বিবেচিত হয়। এর মধ্যে আছে পিনোকিও (ডেনজার), ইলেকট্রিক শক আর হট সামার।

সুলি সর্বশেষ ইনস্টাগ্রামে পোস্ট দেন মৃত্যুর একদিন আগে। এতে তিনি স্ট্রেচ অ্যাঞ্জেল ব্যাগের একটি ভিডিও শেয়ার দিয়েছেন। সম্প্রতি সুলি একটি টিভি অনুষ্ঠানে হাজির হন। অনুষ্ঠানে কে-পপ তারকারা মূলত অন্তর্জালে তাদের পরশ্রীকাতর মন্তব্যসহ নিজেদের অভিজ্ঞতা নিয়ে আলোচনা করেন।

 

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন