শনিবার | নভেম্বর ২৩, ২০১৯ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

শেষ পাতা

হাসপাতাল থেকে কারাগারে সম্রাট

নিজস্ব প্রতিবেদক

অসুস্থতার কারণে তিনদিন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়ার পর কারাগারে ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটকে। গতকাল হূদরোগ ইনস্টিটিউট থেকে তাকে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়। সেখানে সূর্যমুখী সেলে রাখা হয়েছে তাকে।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সহকারী কারাধ্যক্ষ (ডেপুটি জেলার) জাহেদ উল আলম বলেন, কারাগারে এসে অসুস্থ হয়ে পড়ার পর সম্রাটকে কারা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী হূদরোগ ইনস্টিটিউটে নেয়া হয়। সেখানে তিনদিনের চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ছাড়পত্র দিলে সম্রাটকে ফের কারাগারে এনে সূর্যমুখী সেলে রাখা হয়েছে।

ক্যাসিনোবিরোধী চলমান অভিযানের মধ্যেই গত রোববার ভোরে যুবলীগের নেতা সম্রাট তার সহযোগী এনামুল হককে কুমিল্লার মুরাদনগর থেকে আটক করে র্যাব। ওইদিনই ঢাকায় এনে সম্রাটকে সঙ্গে নিয়ে রাজধানীতে বিভিন্ন অভিযান চালায় র্যাব। অভিযানে সম্রাটের ব্যক্তিগত কার্যালয় কাকরাইলের ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টার থেকে পিস্তল, গুলি, ইয়াবা বড়ি, বিদেশী মদ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া দুটি ক্যাঙ্গারুর চামড়া, বৈদ্যুতিক শক দেয়ার দুটি যন্ত্র লাঠিও উদ্ধার করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত সম্রাটকে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠান।

কারাগারে পাঠানোর পর গত মঙ্গলবার সম্রাট অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যান কারারক্ষী সুবেদার মো. মুজাহিদুল ইসলাম। তিনি জানান, বুকে ব্যথা অনুভব করায় সম্রাটকে চিকিৎসার জন্য কারাগার থেকে ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তাকে প্রথমে ঢামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। সমস্যার কথা শুনে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সিসিইউতে পাঠান। সিসিইউতে যাওয়ার পর সম্রাটকে হূদরোগ ইনস্টিটিউটে পাঠানোর পরামর্শ দেন চিকিৎসক। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী মঙ্গলবার সকালেই তাকে ঢামেক হাসপাতাল থেকে হূদরোগ ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাওয়া হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন