মঙ্গলবার | অক্টোবর ২২, ২০১৯ | ৭ কার্তিক ১৪২৬

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

ইউএই

জিডিপিতে ৮ হাজার কোটি ডলার জোগাবে এভিয়েশন খাত

বণিক বার্তা ডেস্ক

কৌশলগত সম্পদের মধ্যে এভিয়েশন খাতকে অগ্রাধিকার দিলে ২০৩৭ সাল নাগাদ সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) মোট দেশজ উৎপাদনে (জিডিপি) অতিরিক্ত ৮ হাজার কোটি ডলার যোগ হবে বলে জানিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইএটিএ) যথাযথ মনোযোগ দেয়া হলে দেশটির এভিয়েশন খাত একই সময়ে অতিরিক্ত ৬ লাখ ২০ হাজার কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারবে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি। খবর অ্যারাবিয়ানবিজনেস।

প্রসঙ্গত, দেশটির অর্থনীতিতে এভিয়েশন খাত এমনিতেই গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে এ খাতে কর্মসংস্থানের সংখ্যা আট লাখ। এ খাত থেকে ইউএইর অর্থনীতিতে যোগ হয় ৪ হাজার ৭৪০ কোটি ডলার, যা দেশটির মোট জিডিপির ১৩ দশমিক ৩ শতাংশ।

আইএটিএর প্রতিবেদন বলছে, এভিয়েশন খাতে সরকারের ইতিবাচক এজেন্ডা অব্যাহত থাকলে ২০৩৭ সাল নাগাদ ইউএইর এভিয়েশন বাজার বাড়বে ১৭০ শতাংশ। এ খাতে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে ১৪ লাখ।

উল্লিখিত সম্ভাব্য সুবিধা ভোগ করতে দেশটিকে নিজেদের এভিয়েশন খাতের সার্বিক সক্ষমতা বাড়াতে হবে বলে পরামর্শ দিয়েছে আইএটিএ। সক্ষমতা না বাড়ালে এভিয়েশন খাতের ভোগান্তি কমানো ও ভবিষ্যতের চাহিদা মেটানো সম্ভব হবে না। আইএটিএ প্রতিবেদন বলছে, এভিয়েশন সক্ষমতা যথেষ্ট না হওয়ায় চাহিদা পূরণ করতে পারছে না এ অঞ্চলের দেশগুলো। প্রতিযোগিতামূলক বৈশ্বিক বাজারে এ অঞ্চলের যে অবস্থান রয়েছে, তা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেটি নিশ্চিত করতে সম্মিলিত সিদ্ধান্তের মাধ্যমে সরকারগুলোকে রাজনীতির লাগাম নিয়ন্ত্রণের পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি।

অন্যদিকে প্রত্যাশিত প্রবৃদ্ধি নিশ্চিত করতে নিজেদের বিনিয়োগের অবকাঠামো ঢেলে সাজানোয় সুপারিশ করেছে আইএটিএ। এছাড়া দক্ষতা বাড়াতে নতুন প্রযুক্তির ব্যবহারের ওপরও গুরুত্বারোপ করেছে সংস্থাটি।

আইএটিএর প্রতিবেদন অনুযায়ী, এভিয়েশন খাতের বাজারের চাহিদা মেটানোর কথা মাথায় রেখে আগামীতে অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগ করতে হবে। অবকাঠামো খাতের বিনিয়োগকে এভিয়েশন খাতের প্রযুক্তি ও সেবা খাতের প্রয়োজনগুলো মেটাতে পারতে হবে। প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়েছে, নতুন প্রযুক্তিতে দ্রুত অভ্যস্ত হতে পারলে ও যোগাযোগ ব্যবস্থার ক্ষেত্রে নিত্যনতুন পরিবর্তনগুলোর সঙ্গে এভিয়েশন খাত তাল মিলিয়ে চলতে পারলে প্রতিযোগিতামূলক বাজারে ইউএই একটি হাবে পরিণত হবে। গত ২৫ বছরে ইউএই নিজেদের অর্থনীতিতে অনেক পরিবর্তন এনেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন