বৃহস্পতিবার | নভেম্বর ১৪, ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬

পণ্যবাজার

তাপ কয়লার দাম কমার পূর্বাভাস অস্ট্রেলিয়ার

বণিক বার্তা ডেস্ক

অস্ট্রেলিয়ার শিল্প বিভাগ তাপ কয়লার মূল্য পূর্বাভাসে সংশোধন এনেছে। বৈশ্বিক চাহিদা শ্লথ হয়ে আসায় জ্বালানি পণ্যটির দাম আগের পূর্বাভাসের তুলনায় কমিয়েছে সংস্থাটি। দেশটির শিল্প বিভাগের ত্রৈমাসিক সম্পদ এবং জ্বালানি প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। খবর এসঅ্যান্ডপি গ্লোবাল প্ল্যাটস।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালে নিউক্যাসলের ৬০০ কিলোক্যালরি এনএআর গ্রেডের প্রতি টন কয়লার স্পট মূল্য দাঁড়াতে পারে ৬৮ ডলার, যা প্রতিষ্ঠানটির জুনের পূর্বাভাসের তুলনায় ৭ শতাংশ কম। চলতি বছর একই ধরনের কয়লা বেচাকেনা হতে পারে প্রতি টন ৭৭ ডলারে। এটাও আগের পূর্বাভাসের তুলনায় ৭ শতাংশ কম। এদিকে ২০২১ সালে প্রতি টন কয়লার দাম ৩ শতাংশ কমিয়ে ধরা হয়েছে ৬৯ ডলার।

চলতি বছরের প্রথমার্ধে কয়লার শীর্ষ ভোক্তা জাপান আমদানি কমিয়েছে। এছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে আমদানি কমেছে। এ সময় চীনে আমদানিতে তুলনামূলক চাঙ্গা ভাব বজায় থাকলেও বছরের শেষ প্রান্তিকে সরকারি নিয়ন্ত্রণে আমদানি কমে আসতে পারে।

এছাড়া বিশ্ববাজারে এলএনজির ধারাবাহিক দরপতনে কয়লা ও গ্যাসের দামও কমছে। এদিকে কয়লার দাম কমায় ক্লিন এনার্জি হিসেবে পরিচিত এলএনজির দিকে ঝুঁকছে ভোক্তা দেশগুলো।

২০২১ সাল নাগাদ চীনে তাপ কয়লার আমদানি আরো কমে আসতে পারে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৯, ২০২০ ও ২০২১ সাল নাগাদ দেশটির কয়লা আমদানি কমে হতে পারে যথাক্রমে ২১ কোটি ৩০ লাখ, ১৯ কোটি ৯০ ও ১৮ কোটি ৫০ লাখ, যা আগের পূর্বাভাসের তুলনায় যথাক্রমে ৭, ৮ ও ৯ শতাংশ কম।

আগের প্রাক্কলনের তুলনায় ১ শতাংশ কমিয়ে চলতি বছর অস্ট্রেলিয়া থেকে জ্বালানি পণ্যটির রফতানি ধরা হয়েছে ২০ কোটি ৬০ লাখ টন। ২০২০ ও ২০২১ সালের রফতানির প্রাক্কলন করা হয়েছে যথাক্রমে ২১ কোটি ৩০ লাখ ও ২১ কোটি ৬০ লাখ টন, যা আগের পূর্বাভাসের তুলনায় যথাক্রমে ১০ লাখ টন ও ৪ শতাংশ কম।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন