বৃহস্পতিবার | নভেম্বর ২১, ২০১৯ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দেশের খবর

ভুল চিকিৎসায় নববধূর মৃত্যুর অভিযোগ

বড়াইগ্রামে হাসপাতাল সিলগালা, মালিক আটক

বণিক বার্তা প্রতিনিধি নাটোর

নাটোরের বড়াইগ্রামের বনপাড়ায় হেলথকেয়ার জেনারেল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় সুমাইয়া খাতুন (১৬) নামে এক নববধূর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে অভিযোগ পেয়ে গতকাল দুপুরে হাসপাতালটি সিলগালা ও এর মালিক আরশেদ আলীকে আটক করেছে স্থানীয় প্রশাসন। এর আগে ভোর ৪টায় ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুমাইয়া খাতুনের মৃত্যু হয়।

সুমাইয়া খাতুন উপজেলার বড়াইগ্রামের রামেশ্বরপুর গ্রামের সবুজ হোসেনের স্ত্রী। সে বড়াইগ্রাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল। গত আগস্টের প্রথম সপ্তাহে তার বিয়ে হয়। তার বাবার নাম রাহাবুল ইসলাম। আর আরশেদ আলী উপজেলার মাঝগাও ইউনিয়নের নটাবাড়িয়া গ্রামের মৃত অসিমউদ্দিনের ছেলে।

নিহত সুমাইয়ার মা মোমেনা খাতুন জানান, পেটে প্রচণ্ড ব্যথার কারণে শনিবার সন্ধ্যায় সুমাইয়াকে বনপাড়া হেলথ কেয়ার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ৮টার দিকে ওই হাসপাতালের চিকিৎসক সামিরা তাবাচ্ছুম সাথী তার অপারেশন করেন। রাত ৩টার দিকে তার অবস্থা খারাপ হলে সাথী সুমাইয়াকে ইনজেকশন পুশ করেন এবং এর ১ ঘণ্টা পর সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল দুপুরে স্বজনরা সুমাইয়ার মৃত্যুর ব্যাপারে অভিযোগ করলে তা তদন্ত করতে আসেন বড়াইগ্রাম সার্কেলের এএসপি হারুন-অর-রশিদ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আনোয়ার পারভেজ। এ সময় তারা হাসপাতালটি সিলগালা ও মালিককে আটক করেন।

বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ নজমুল হক জানান, এ ঘটনায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন