বৃহস্পতিবার | নভেম্বর ১৪, ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬

খবর

দারিদ্র্য বিমোচনে পিকেএসএফের নতুন প্রকল্প

নিজস্ব প্রতিবেদক

অতিদরিদ্রদের জন্য পাথওয়েস টু প্রসপারিটি ফর এক্সট্রিমলি পুওর পিপল (পিপিইপিপি) নামে নতুন এক প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) গতকাল রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পিকেএসএফ ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকল্পটির উদ্বোধন করা হয়। যুক্তরাজ্যের ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি) ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) আর্থিক সহযোগিতায় দেশের ১৩টি জেলার ১৫০টি ইউনিয়নে ছয় বছরে (২০১৯-২৫) প্রকল্পটি  বাস্তবায়ন করা হবে।

পিকেএসএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আসাদুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডিএফআইডি বাংলাদেশের প্রধান জুডিথ হার্বার্টসন বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের হেড অব কোঅপারেশন মার্শিও চ্যান।

প্রধান অতিথি মো. আসাদুল ইসলাম বলেন, ২০২০ সালের মধ্যে অতিদারিদ্র্য দশমিক শতাংশে নামিয়ে আনতে সরকার বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য এক বড় চাপ। পিপিইপিপি প্রকল্প টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট- অর্জনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন আসাদুল ইসলাম। 

বাংলাদেশে ডিএফআইডির প্রধান জুডিথ হার্বার্টসন বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সবসময় উন্নয়নের আসল চিত্র তুলে ধরে না। বাংলাদেশে এখনো অসমতা, অপুষ্টি, জলবায়ু পরিবর্তনের মতো প্রকট সমস্যা বিদ্যমান। যুক্তরাজ্য বাংলাদেশকে এক্ষেত্রে সহায়তা অব্যাহত রাখবে। 

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বৈষম্য একটি বড় বাধা বলে উল্লেখ করেন মার্শিও চ্যান। 

মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশের কমপক্ষে ছয় কোটি দরিদ্র মানুষকে পিকেএসএফ সহায়তা প্রদান করছে। 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন